Default

যে খাবারগুলি শক্তি নষ্ট করে

jসুস্থ ও সচল থাকতে আমাদের পুষ্টিকর খাদ্যের প্রয়োজন। খাদ্য যেমন আমাদের বাঁচিয়ে রাখে অন্যদিকে এটা জীবন উপভোগ করার সুযোগও করে দেয়। খাবার এবং পানীয় আপনার শরীর সুস্থও ক্রিয়াশীল রাখে।

স্ট্রেস, দুশ্চিন্তায় আমাদের শক্তি নিঃশেষিত হয়। তাই, সুস্থ থাকতে ও প্রতিদিন নতুন করে কাজ শুরু করতে, আপনার সঠিক আহারের প্রয়োজন। কিন্তু আপনি অবাক হবেন, যখন জানবেন প্রতিদিনের খাবারই আপনার শক্তির ক্ষয় করতে পারে!

এ বিষয়টা হালকাভাবে না নিয়ে, গভীরভাবে চিন্তা করুন। আপনার সন্তান বা প্রিয়জনের স্বাস্থ্য তো অবহেলার বিষয় না। তাই শক্তি ক্ষয় করা আহার নিয়ে এখন থেকেই সচেতন হতে হবে। সুতরাং, যে খাবারগুলি শক্তি নষ্ট করে সেগুলির সম্বন্ধে জানতে হবে।

গবেষকদের মতে শক্তি ক্ষয় করে, এমন কয়েকটি খাবার সম্পর্কে নিম্নে আলোচনা করা হল :

স্যান্ডউইচ ও বার্গার : বাজারে বড় স্যান্ডউইচ, বার্গার বা সাবমেরিন স্যান্ডউইচ রুটি প্রক্রিয়াজাত মাংস দিয়ে তৈরি হয় যা শর্করার উৎস। তাছাড়া, সোডিয়াম নাইট্রাইটের মত পদার্থ, Msg, সংরক্ষক, কৃত্রিম রং ইত্যাদি উপাদান শুধুমাত্র স্থূলতা বাড়ায় যা শক্তি নিঃশেষিত করে।

চেরি : চেরি সেই খাবার যা আপনার শক্তি নষ্ট করে দেয়। আসলে, চেরিতে একটি উপাদান আছে যাকে বলে মেলাটোনিন। এটি আপনার স্নায়ুর ওপর কাজ করে এবং আপনার শক্তি বিপর্যস্ত করে। সুতরাং, যদি আপনি চেরি খেতে ইচ্ছুক হন তাহলে শুধু রাতে খান।

পাস্তুরাইজড দই : পাস্তুরাইজড সুগন্ধযুক্ত দই যা স্থানীয় বাজারে পাওয়া যায়। এটি সম্পূর্ণরূপে একটি শক্তি হত্যাকারী উপাদান। কৃত্রিম গন্ধ, রং এবং চিনির যোগ এটাকে অস্বাস্থ্যকর করে। এছাড়া এই সব দইয়ে সহায়ক ব্যাকটেরিয়ার অভাব থাকে। এটা শুধুমাত্র আপনার ওজন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

চর্বিযুক্ত মাংস : চর্বিযুক্ত মাংসকে না বলুন, মানে কখনও ব্রেকফাস্ট বা লাঞ্চে সসেজ বা বার্গার খাবেন না। এইগুলি মেদযুক্ত মাংস দিয়ে তৈরি হয়, যা ভাঙতে শরীরের প্রচুর শক্তি নিয়ে নেয়।

মফিন : সুস্বাদু ও মিষ্টি ছোট্ট মফিনটি চিনি, কার্ব, কৃত্রিম স্বাদ ও রঙে ভরপুর যা আপনার ইনসুলিন স্তর বৃদ্ধি করে এবং আপনাকে ক্লান্ত করে।
ওটমিল : আপনি হয়তো এই খাবারটি দেখে বিস্মিত হচ্ছেন! এটি চিনি ছাড়া খাবেন, কারণ এটি আপনার দুপুরের শক্তি নষ্ট করে দিতে পারে। এমনকি মধু ব্যবহারও করবেন না কারণ এতে গ্লুকোজ আছে যার থেকে ঝিমুনি ভাব আস্তে পারে।

চিপস : চিপস, অস্বাস্থ্যকর চর্বি এবং অতিরিক্ত সোডিয়াম ছাড়া আর কিছুই নয়। এটা আপনাকে শুধুই সচল থাকার বদলে মেদ বাড়িয়ে দেয়। এছাড়াও, চিপস তৈরির গরম করার প্রক্রিয়ায় একটি রাসায়নিক উপজাত, আক্রিলামায়িড সৃষ্টি হয় যা ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে।

ভিডিওঃ সাপকে চুমু দিতে গিয়ে জিব্বা ও ঠোঁট হারালো যুবতি!! দেখুন ভয়ঙ্কর সেই ঘটনাটি (ভিডিও)

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment