বিনোদন

যে কারণে টেলিভিশনে কপিল শর্মার রাজত্ব শেষ!

সহকর্মীর সঙ্গে বিমানে বাজে ব্যবহার ও মারামারি করার অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছিলেন ভারতীয় টিভি জগতের সেরা কমেডিয়ান কপিল শর্মা। সেই বিতর্কের কারণে তার শো ছেড়ে দেন একাধিক সহকর্মী। কপিল নিজেও এরপর ভেঙে পড়েন। একাধিকবার তার শোয়ের শুটিং বাতিল হয়েছে। এমনকি তিনি নিজেও সেটে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। নতুন কোন পর্বের শুটিং স্থগিত। ধারণা করা হচ্ছে, কপিল শর্মার রাজত্বের সমাপ্তি ঘটেছে টিভির জগতে।

যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে ‘দ্য কপিল শর্মা শো’ শেষ করে দেওয়ার কোনও ইঙ্গিত দেননি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। তবে ব্রডকাস্ট অডিয়েন্স রিসার্চ কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার সূত্র অনুযায়ী, গত ৮ জুলাই থেকে ১৪ জুলাইয়ের মধ্যে টিআরপির তালিকায় কপিলের শোয়ের প্রথম পাঁচে জায়গা হয়নি। যা নাকি এই অনুষ্ঠানের ইতিহাসে কখনও ঘটেনি। ফলে ব্যবসায় মার খাওয়ায় কপিলের শো বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন টেলি ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই।

কয়েক মাস আগে মাঝ আকাশে বিমানের মধ্যে সুনীল গ্রোভার ও কপিল শর্মার ঝামেলার পরই শো-এর টিআরপির পতন শুরু। এরপর শোনা গিয়েছিল, অসুস্থ থাকার কারণে নাকি পর পর দুই এপিসোডের শুটিং বাতিল করেন কপিল। তার জন্য শাহরুখ, আনুশকা, অনিল কাপুর, অর্জুন কাপুরসহ অন্যান্য অভিনেতারা অপেক্ষা করে ফিরে যান।

ওদিকে কপিলের বোন পূজা জানিয়েছেন, শোয়ের খারাপ টিআরপির কারণে অতিরিক্ত চাপ নিচ্ছেন কপিল। তার শরীর ইদানিং বেশ খারাপ। তবে কোনও অজুহাতে তিনি কখনও শুটিং বাতিল করেননি। কপিল অপেশাদার নন।

উল্লেখ্য, ১৬ মার্চ অস্ট্রেলিয়া থেকে মুম্বাইগামী একটি ফ্লাইটে কমেডিয়ান সুনীল গ্রোভারকে মারধর ও গালাগালি করেছেন কপিল। এ কারণে সামাজিক ও সংবাদমাধ্যমে সমালোচনার শিকার হন কপিল। এরপর পুরো ঘটনার জন্য ক্ষমা চান তিনি। তাও কাজ হয় নি। শোতে ফেরেন নি সহকর্মীরা। তারা নিজেরা একই চ্যানেলে আরেকটি শোয়ের শুটিং শুরু করেছেন। ওদিকে ‘দ্য কপিল শর্মা’ শোয়ের পুরনো পর্বগুলোই প্রচারিত হচ্ছে টিভিতে।

সূত্র: এনডিটিভি