আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভ ক্রমেই ছড়িয়ে পড়ছে

eযুক্তরাষ্ট্রে ডোনাল্ড ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভ ক্রমেই ছড়িয়ে পড়ছে। বিজয় নিশ্চিত হওয়ার পরপরই বুধবার রাতে রাস্তায় নেমে আসে ক্যালিফোর্নির হাজার হাজার বিক্ষোভকারী।

সময় গড়ানোর সঙ্গে বিক্ষোভ অন্যান্য শহরেও দানা বাঁধে। অনেক জায়গায় পুলিশি বেষ্টনীর মধ্যেই সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে দেখা যায়।

আমেরিকার কোনো নির্বাচনের ফলাফলে এ রকম বিক্ষোভকে নজিরবিহীন বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্লেষকরা।

যদিও সমর্থকদের একতা আর ফলাফল মেনে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ডেমোক্রেট থেকে পরাজিত প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন এবং প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

কিন্তু অনেক শহরের বাসিন্দাই তাদের ক্ষুদ্ধ মনোভাব প্রদর্শন করেছেন। কয়েক হাজার মানুষ নিউইয়র্কে ট্রাম্প টাওয়ারের সামনে অবস্থান নিয়ে অভিবাসন, সমকামী অধিকার বিষয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের নীতির বিরোধিতা করছেন।

পোর্টল্যান্ড, ওরেগনের মতো কয়েকটি শহরে বিক্ষোভকারীরা আমেরিকার পতাকা পুড়িয়েছে। এ সময় তারা একটি আন্তঃরাজ্য মহাসড়কও অবরোধ করে রাখেন।

ফলাফল নিশ্চিত হওয়ার কিছু পরেই ক্যালিফোর্নিয়ার বার্কলে আর অকল্যান্ড শহরে বিক্ষোভ শুরু হয়। এ সময় বিক্ষোভকারীরা ডোনাল্ড ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে স্লোগান দেন, ‘ট্রাম্প আমাদের প্রেসিডেন্ট নয়।’

পশ্চিম উপকূলের আরও কয়েকটি শহর আর শিকাগোতে ছোট আকারের বিক্ষোভ হয়েছে। এসব বিক্ষোভে অংশ নেয়াদের বেশিরভাগই ছিলেন শিক্ষার্থী আর তরুণ ভোটার।

ইতিমধ্যে নিউইয়র্ক, শিকাগো, বোস্টন, ফিলাডেলফিয়া, সান ফ্রান্সিসকো, লস আঞ্জেলস, ওকল্যান্ড, সিয়াটল, পোর্টল্যান্ড, ওয়াশিংটন ডিসি, সেন্ট পল, মিনেসোটা, রিচমন্ড, ভার্জিনিয়া, কানসাস সিটি, ওমাহা, নেব্রাসাকা, টেক্সাস, অস্টিন, বার্কলি, পিটার্সবার্গ, ওরেগন, আটলান্টা ও ডেনভারে বিক্ষোভ-সমাবেশ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ-সমাবেশে হাজারো মানুষ অংশ নেন। নানা শ্রেণী-পেশা ও বয়সের নারী-পুরুষ এসব বিক্ষোভে অংশ নিয়ে ট্রাম্পের প্রতি তাদের অনাস্থার কথা জানিয়ে দেন।

হোয়াইট হাউসের কাছেও বিক্ষোভকারীদের জড়ো হতে দেখা গেছে। তারা ট্রাম্পবিরোধী নানা স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড বহন করেন। বিক্ষোভকারীরা চিৎকার করে স্লোগান দিতে থাকেন, ‘ট্রাম্প আমাদের প্রেসিডেন্ট নয়’, ‘ট্রাম্পকে আমরা চাই না’।

বিক্ষোভকারীরা বলেন, ট্রাম্পের মতো লোকের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার ঘটনায় তারা বিস্মিত, ব্যথিত, ভীত। এটা তারা মানতে পারছেন না।

এ সময় অনেক প্রতিবাদী বলতে থাকেন, ‘দেহ আমার, পছন্দ আমার। আমরা ট্রাম্পকে মানি না’।

প্রতিবাদ-সমাবেশে কোথাও কোথাও সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। সিয়াটলে বিক্ষোভে বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন।

আবার বেশ কয়েকটি শহরে পুলিশকে অনেক বিক্ষোভকারীকে আটক করতে দেখা গেছে। নিউইয়র্ক সিটির ট্রাম্প টাওয়ারের সামনে থেকে অন্তত চারজন বিক্ষোভকারীকে পুলিশ আটক করেছে।

ভিডিও:ভয়ঙ্কর বিষাক্ত সাপের বিষ দাত যেভাবে ভাঙ্গে সাপুড়েরা !! দেখলে আপনি নড়েচড়ে বসবেন !দেখুন (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment