আন্তর্জাতিক

মোবাইলে কথা বললেই খুন!‌

1aবিশ্বব্যাপী আতঙ্ক ছড়ানো আইএসের শেষ শক্ত ঘাঁটি ইরাকের মসুলে বর্তমানে অভিযান চালানো হচ্ছে। সেখান থেকে পালিয়ে যাওয়া শরণার্থীরা জানান, মসুল দখল করার পর হাজারেরও বেশি নিষেধাজ্ঞা জারি করে আইএস। এর মধ্যে একটি ছিল- মোবাইলে কথা বলায় নিষেধাজ্ঞা। কেউ এটা অমান্য করলেই তাকে খুন করত আইএস।

ইরাকি বাহিনীর অভিযানে মসুল ছেড়ে আরো উত্তরে পালাতে বাধ্য হয়েছে আইএস। আইএস নির্মূলে কমপক্ষে ৪০-৫০টি গ্রাম ঘিরে রেখেছে ইরাকি সেনারা। এসব গ্রাম থেকেই কোনোক্রমে পালিয়ে শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন বহু গ্রামবাসী। তারাই প্রকাশ করেন আইএসএর এসব ফতোয়ার কথা।

সঙ্গে চার সন্তান, পঙ্গু স্বামী আব্বাস আলিকে নিয়ে শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন বুসরা। তিনি বলেন, পালাতে গিয়ে জঙ্গিদের হাতে খুন হয়েছেন একের পর এক গ্রামবাসী। ধরা পড়লে চাবুক মারা হচ্ছে প্রকাশ্যে। আইএসের নিষেধাজ্ঞার কারণে স্কুল ছাড়তে হয়েছে তার সন্তানদের। তরুণরা কত লম্বা দাড়ি রাখবে তাও বলে দিত জঙ্গিরা। এদিক-ওদিক হলেই নির্মম নির্যাতন সইতে হতো। সিগারেট খাওয়াও ছিল নিষিদ্ধ। আইএস দখল করার পর মসুলে বেশিরভাগ লোকজনেরই ব্যবসায় ধস নামে। কারণ ব্যবসার প্রথম ও প্রধান শর্ত প্রতি মাসে আইএসকে চাঁদা দিতে হবে। না দিলে জান-ব্যবসা দুই-ই শেষ।

ভিডিওঃ সুপার সেক্সি বেলি ড্যান্সার! তাও আবার ভারতীয়! (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment