খেলা-ধুলা

মেসি-রোনালদোর স্থান নিবে নেইমার-দিবালা

11ফুটবল বিশ্বে জনপ্রিয় দুটি নাম হচ্ছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও লিওনেল মেসি। এদের জনপ্রিয়তা যতট তুঙ্গে উঠে সেই সঙ্গে এদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও ততটা উর্ধ্বগামী হয়। আর গত আট বছর ধরে ফুটবলের বর্ষসেরা পুরস্কারটি এ দুজনই ভাগাভাগি করে আসছেন। আর এই দুজন কিংবদন্তির অবসরে তাদের জায়গা নেবেন আর্জেন্টাইন তারকা পাওলো দিবালা ও ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার। এমনটাই মানছেন বায়ার্ন মিউনিখ কোচ কার্লো আনচেলত্তি।

গত আট বছরের মধ্যে পাঁচবার বর্ষসেরা হয়েছেন আর্জেন্টাইন তারকা মেসি। আর বাকি তিনবার এ পুরস্কারটি জেতেন পর্তুগিজ তারকা রোনালদো। আনচেলত্তির মতে, মেসি-রোনালদোর পরে আগামীতে এরকম প্রতিদ্বন্দ্বিতাই দেখা যাবে দিবালা ও নেইমারের মধ্যে।

দিবালা ২০১৫ সালে জুভেন্টাসে যোগদানের পর সবধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৫৭ ম্যাচে ২৭টি গোল করেছেন। গত মৌসুমে ইতালির ঘরোয়া লিগে দলকে ডাবল জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানও রাখেন তিনি। ২২ বছর বয়সি এই তরুণ ফরোয়ার্ড এই মৌসুমেও ভালো ফর্মে রয়েছেন। তিনি ১১ ম্যাচে ৪ গোল করেছেন।

দিবালাকে নিয়ে আনচেলত্তি বলেন, ‘আগামী ১০ বছরে দিবালা জুভেন্টাসে ইতিহাস গড়ে দেখাতে পারে। সে অনন্য। আপনি ওর সঙ্গে অন্য কাউকে তুলনা করতে পারবেন না।’

এছাড়া আনচেলত্তি দিবালা ও নেইমার সম্পর্কে বলেন, ‘নেইমার-দিবালা মেসি ও রোনালদোর যোগ্য উত্তরসূরি হতে পারে।’

এদিকে নেইমার ২০১৩ সালে বার্সেলোনায় যোগদানের পর থেকে নিজেকে আরও উঁচুতে নিয়ে গিয়েছেন। এ পর্যন্ত তিনি বার্সার হয়ে ৯১টি গোল করেছেন। এছাড়া গত বছর ব্যালন ডি’অরের সংক্ষিপ্ত তিনজনের তালিকাতেও তার নাম ছিল।

আর এ বছরেও মেসি ও লুইস সুয়ারেজের সঙ্গে ‘এমএনএস’ আক্রমণত্রয়ীর হয়ে ভালো ছন্দেই রয়েছেন নেইমার। ক্লাবের হয়ে ১৩ ম্যাচে ছয় গোল করেছেন। আর এ বছর রিও অলিম্পিকে দেশকে স্বর্ণপদকও জিতিয়েছেন তিনি।

ভিডিওঃ ১০ম শ্রেণীর ছাত্রীর চরম কোমর দোলানো নাচ

Add Comment

Click here to post a comment