Advertisements
জাতীয়

‘মুদি দোকান চালাই, অথচ সবাই আমাকে বলছে কোটিপতি’

ধর্ষণের ঘটনার পর থেকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা আমাকে নিয়ে টানাটানি করতে থাকে। তাই আমি নিজেকে বাঁচাতে ছেলে ইভানকে র‌্যাবের হাতে ধরিয়ে দিয়েছি। ছেলে অপরাধী হলে শাস্তি পাবে, না হলে খালাস পাবে। এসব কথা বলছিলেন রাজধানীর বনানীর ধর্ষণ মামলার আসামি ইভানের বাবা বোরহান উদ্দিন।

শুক্রবার দুপুর দুইটার দিকে ইভানকে আদালতে হাজির করে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা বনানী থানার উপ-পরিদর্শক সুলতানা আক্তার। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মাজহারুল ইসলাম চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ সময় ইভানের বাবা-মা ও স্ত্রী আদালতে উপস্থিত ছিলেন। ইভানের বাবা কান্না জড়িত কণ্ঠে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি সিটি কর্পোরেশন মার্কেটে মুদি দোকান চালাই। অথচ সবাই আমাকে কোটিপতি বলছেন। আমার ছেলে বিবাহিত। তার দুইটা বাচ্চা আছে। তার স্ত্রী সুন্দরী। সে কেন এ কাজ করতে যাবে।
ইভানের স্ত্রী বলেন, আমার স্বামী ষড়যন্ত্রে শিকার। তাকে ফাঁসানো হয়েছে।

এদিকে ইভানকে আদালতে কান্না করতে দেখা যায়। তিনি বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। মেয়েটি বিবাহিত। উল্লেখ্য, গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ থেকে ইভানকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

এদিকে বাহাউদ্দিন ইভান ধর্ষণের ঘটনা শিকার করেছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। শুক্রবার সকালে র্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইং এর পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান। তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইভান ধর্ষণের কথা শিকার করেছেন।

গত মঙ্গলবার রাতে জন্মদিনের দাওয়াত দিয়ে বনানীতে বাসায় ডেকে ইভান এক তরুণীকে ধর্ষণ করে। পরে ওই তরুণী ধর্ষণের অভিযোগ এনে বুধবার বনানী থানায় ইভানের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

Advertisements