আন্তর্জাতিক

মুখোশ খুলে যাচ্ছে মায়ানমার সরকারের : রোহিঙ্গা মহিলাদের গণধর্ষণের অভিযোগ

মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশ থেকে প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মহিলাদের ধর্ষণ করে খুন করা হচ্ছে৷ অভিযোগ, মায়ানমার সেনার একাংশ নির্বিচারে ধর্ষণ করছে৷ বিবিসি জানাচ্ছে এই খবর৷

বাংলাদেশের কক্সবাজার, চট্টগ্রামে পালিয়ে আসা ধর্ষিতা রোহিঙ্গা মহিলাদের বেশিরভাগই ধর্ষণের শিকার হয়েছেন৷ তাঁরা লজ্জায় চিকিৎসকদের কাছে যেতে চাইছেন না৷ স্থানীয় চিকিৎসকদের কাছে সংগ্রহ করা তথ্যের ভিত্তিতে এমনই সংবাদ প্রকাশ করেছে বিবিসি৷

গত ২৫ অগস্ট থেকে মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশ জাতিগত সংঘর্ষে রক্তাক্ত৷ সেদেশের সরকারের অভিযোগ, প্রথমে রোহিঙ্গা জঙ্গি গোষ্ঠীর তরফে সেনা চৌকিতে হামলা করা হয়েছিল৷ পরে শুরু হয় সেনা অভিযান৷ আর এই অভিযান ঘিরেই আন্তর্জাতিক মহল তীব্র আলোড়িত৷

অভিযোগ, রাখাইন প্রদেশে অমানবিক অত্যাচার চালাচ্ছে মায়ানমার সেনা৷ উদ্বিগ্ন রাষ্ট্রসংঘের তরফে অবিলম্বে অভিযান বন্ধ রাখার আবেদন করা হয়েছে৷

এদিকে প্রাণ বাঁচাতে সীমান্ত পেরিয়ে তিন লক্ষের বেশি রোহিঙ্গা প্রবেশ করেছেন বাংলাদেশের কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, টেকনাফে৷ সেখানকার শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা মহিলাদের অভিযোগ, প্রকাশ্যে ধর্ষণ করে খুন করছে মায়ানমার সেনা৷ পরপর গ্রাম জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ অনেকে কোন রকমে প্রাণে বেঁচে গেলেও ধর্ষণ এড়াতে পারেনি। কয়েকজনকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে বলে অভিযোগ৷

কক্সবাজারের বিভিন্ন শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা মহিলা ও শিশুদের জন্য চিকিৎসা পরিষেবা দিতে এগিয়ে এসেছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা৷ তাদের সঙ্গে রয়েছেন স্থানীয় চিকিৎসকরা৷ তারা জানিয়েছেন, ধর্ষণ বা যৌন নির্যাতনের বিষয়ে মহিলারা মুখ খুলছেন না৷ তাই তাদের জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা কঠিন হয়ে পড়ছে৷