খেলা-ধুলা

মিরাজকে ব্যাটিংয়ে ১০ নম্বরে দেখে বিস্মিত মাহমুদুল্লাহ যা বললেন

ruঅনূর্ধ্ব-১৯ বাংলাদেশের ক্রিকেটে তাকে সবাই ব্যাটসম্যান অলরাউন্ডার হিসেবেই চিনতো। ব্যাটসম্যান মেহেদী হাসান মিরাজের দিকেই তাকিয়ে থাকতো দলের সবাই। বল হাতেও দলের জন্য অবদান রাখতেন। তবে জাতীয় দলে অভিষেকের পর মিরাজের পরিচয় হয়েছে স্পিনার হিসেবে।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ১৯ উইকেট পাওয়া ডানহাতি এই তরুণ অলরাউন্ডার ব্যাট হাতে কিছুই করতে পারেননি। চার ইনিংসে করেছেন ৫ রান। এমন ব্যাটিংয়ের প্রভাব পড়লো এসে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল)। বিপিএলের চতুর্থ আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মিরাজকে ১০ নম্বরে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছে রাজশাহী কিংস।

হেরে যাওয়া এই ম্যাচে কোনো বলই মোকাবেলা করা হয়নি মিরাজের। ১০ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামা মিরাজ শুধু নন স্টাইক প্রান্তে দাঁড়িয়েই থেকেছেন। মিরাজকে ১০ নম্বরে ব্যাটিং করতে দেখে রীতিমতো বিস্মিত হয়েছেন প্রতিপক্ষ দলের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

মিরাজদের দল রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে তিন রানের রুদ্ধশ্বাস এক জয়ের পর খুলনা টাইটান্সের অধিনায়ক বললেন, ‘আমার কাছে সারপ্রাইজিং ছিল। আমি আশা করেছিলাম ও (মিরাজ) একটু উপরের দিকে নামবে। সে দারুণ প্রতিভাবান। ব্যাটিংয়েও ভালো করতে সমর্থ। আমার মনে হয়, ওকে আরো সুযোগ দেয়া উচিত।’

১৩৩ রানের পুঁজি নিয়েও তিন রানের জয়ে বল হাতে দারুণ ভূমিকা রেখেছেন মাহমুদুল্লাহ। দুই ওভারে মাত্র ছয় রান খরচায় নিয়েছেন দুই উইকেট। শেষ ওভারটাও করেছেন দারুণ। মাঝে এবং শেষে আসার পরিকল্পনা ছিলো? খুলনা অধিনায়ক বলছেন, ‘না, সেরকম কোন পরিকল্পনা ছিল না। শেষ মুহূর্তে আমার হাতে স্ট্রাইক বোলার হিসেবে শফিউল আর জুনায়েদ ছিল।’

বিকল্প না থাকাতেই শেষ ওভার করতে হয়েছে বলে জানালেন ডানহাতি এই অলরাউন্ডার, ‘জুনায়েদের একটা ওভার বাকি ছিল। ওকে মাঝখানে এক ওভার করিয়েছি, কারণ উইকেট দরকার ছিল। সৌভাগ্যবশত, পরের ওভারে শফিউল আমাদেরকে সেই ব্রেক থ্রুটা এনে দেয়। স্যামির উইকেটটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। শেষ ওভারে যেহেতু অন্য কোন বিকল্প ছিল না, তাই আমাকে বোলিংয়ে আসতে হয়েছে।’

শেষ ওভার করতে এসে শুরুতে চাপ অনুভব না করলেও শেষ ডেলিভারিটির আগে ভরকে গিয়েছিলেন মাহমুদুল্লাহ, ‘আমি নিজের উপর খুব একটা চাপ নিচ্ছিলাম না। তবে শেষ বলটা করার সময় চাপে ছিলাম। আমি শুধু ভাবছিলাম যে যদি ভালো জায়গায় বল ফেলতে পারি আর ভাগ্যের সহায়তা পাই, তাহলে হয়তো ম্যাচ জিততেও পারি।’

আরও পড়ুনঃ ২৮ বছর আগেই যা বলেছিলেন ট্রাম্প! (ভিডিওসহ)

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment