লাইফ স্টাইল

মনের উপর রঙেরও প্রভাব থাকে

প্রত্যেকটা রঙের নিজস্ব একটা অর্থ আছে। গবেষকরা বলছেন, রঙ বলে দিতে পারবে মানুষের ব্যক্তিত্বের অনেক কিছু। পারিপার্শ্বিক বিভিন্ন অবস্থা যেমন আমাদের মনের উপর প্রভাব বিস্তার করে, তেমনি আমাদের মনের উপর রঙেরও একটা প্রভাব রয়েছে। বিজ্ঞান অনুযায়ী প্রিয় রঙের দিকে একমনে তাকিয়ে থাকলে তা আমাদের মনকে শিথিল করতে সাহায্য করে। রঙ আমাদের শরীর, মন এবং আবেগের উপর অনেক প্রভাব ফেলে। আসুন জেনে নিই কোন রঙ মনের উপর কী ধরনের প্রভাব ফেলে।

❏ নীল: আমরা অনেকেই বলে থাকি, নীল ভালবাসার রঙ। কিন্তু আপনি জানেন কি এই শান্তিময়, মৃদু রঙটির চাপ পরিচালনা করার অসাধারণ ক্ষমতা রয়েছে? নীল রঙ হৃদস্পন্দনের হার মন্থর করতে সাহায্য করে। মনকে শান্ত রাখে এবং রক্তচাপের পরিমাণ কমাতে সাহায্য করে। নিরপেক্ষ আলোকছায়ার মনোরম একটি রঙ হচ্ছে নীল। তাই এটি মনের উদ্বেগ কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই আপনার চারপাশের পরিবেশ ও মনকে শান্ত রাখতে শোবার ঘরে আপনি নীল রঙ ব্যবহার করতে পারেন।

❏ সবুজ: শান্তির প্রতীক আরেকটি রঙ হচ্ছে সবুজ। সবচেয়ে সুন্দর রঙগুলোর মধ্যে সবুজ একটি। আর সবুজ হচ্ছে প্রকৃতির রঙ, এটি আমাদের মনকে খুবই প্রভাবিত করে। আমাদের অনুভূতিগুলোকে বেশ আকৃষ্ট করে সবুজ রঙ। এটি আমাদের উদ্বেগকে বিকর্ষণ করে মনকে শান্ত করতে সাহায্য করে। তাই মনকে শান্ত সজীব রাখতে দিনের কিছুটা সময় সবুজ প্রকৃতির দিকে তাকিয়ে থাকার চেষ্টা করুন। এতে আপনার মনের প্রশান্তির পাশাপাশি চোখের প্রশান্তিও লাভ হবে। প্রতিদিন অন্তত ১০মিনিটের জন্য হলেও এই কাজটি করার চেষ্টা করুন। এতে আপনার চোখের জ্যোতিও বাড়বে।

❏ গোলাপি: গোলাপি, শান্তির একটি রঙ। গোলাপি রঙ কোন রুমে শান্তি প্রচারের পাশাপাশি বিভিন্ন শক্তির সঞ্চার করে থাকে। সাধারণত বাচ্চা মেয়েদের রুমে এই রঙের ব্যবহার খুব বেশি চোখে পড়ে। শুধু তাদের রুমেই নয়, তাদের পোশাক-আশাক, ব্যবহার্য জিনিসপত্র সবকিছুতেই গোলাপি রঙের ব্যবহার চোখে পড়ার মতো।

❏ সাদা: সাদা রঙ হল স্বচ্ছতা ও পবিত্রতার প্রতীক। আপনি যদি খুব চাপের মধ্যে থাকেন তাহলে আপনার আশেপাশের সাদা রঙকে প্রাধান্য দিয়ে দেখুন। কিছুক্ষণ পর আর চাপ অনুভব করবেন না। একজন গর্ভবতী মায়ের জন্য সাদা রঙের ঘর একটি আদর্শ ঘর হতে পারে। তবে সাদা রঙের ঘরের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে একটু বেশি নজর দিতে হবে। ঘরে উজ্জ্বল সাদা রঙ ব্যবহার করুন। বেশি কড়া রঙ ঘরে ব্যবহার করলে ঘরে একটা নিস্তেজ ও মলিন ভাব আসে। এই নিস্তেজতা আপনার মনকেও প্রভাবিত করতে পারে। তাই ঘরের শান্ত সতেজ পরিবেশ বজায় রাখতে উজ্জ্বল সাদা রঙের কোন জুড়ি নেই।

❏ বেগুনি: শক্তি, শান্তি ও জ্ঞান প্রকাশ করে বেগুনি রঙ। এটি আপনার মাঝে অভ্যন্তরীণ শক্তি এবং মনের ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করবে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সৃষ্টির জন্য বেগুনি রঙকে প্রাধান্য দেয়া যেতে পারে। বেগুনি রঙ শরীরের সোডিয়াম ও পটাশিয়াম বজায় রেখে হাড়ের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এছাড়া এই রঙ সম্পর্কে আপনাদের আরো একটি গোপন তথ্য জানিয়ে রাখি, বেগুনি রঙের আলোয় ধ্যান করতে বসলে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় ১০গুণ বেশি লাভবান হওয়া যায়।

❏ ধূসর: ধূসর রঙকে নিষ্প্রভ ও বিষণ্ণতার রঙ মনে করা হলেও এ রঙে শীতল ও ঠান্ডার উপস্থিতি রয়েছে। আপনারা ধূসর রঙটি নীল বা সাদা রঙের সাথে মিশিয়ে ঘর রাঙানোর কাজে ব্যবহার করতে পারেন। এতে ঘরের সৌন্দর্য আরো বাড়বে।

❏ হলুদ: হলুদ রঙটি একটু চঞ্চল প্রকৃতির। হলুদ রঙের দিকে আপনি কিছুক্ষণ তাকিয়ে থাকলে আপনি নিজেকে আরো বেশি জীবন্ত ও কর্মচঞ্চল মনে করবেন। তাই আপনি যদি সব আলস্য ঝেড়ে ফেলে কর্মব্যস্ত দিন কাটাতে চান, তাহলে কাজের জায়গার কোন একটি স্থানে হলুদ রঙের কোন একটি জিনিস রাখুন। এটি আপনার জড়তা ঝেড়ে ফেলতে সাহায্য করবে। সম্প্রতি এক গবেষণায় হলুদ রঙ সম্পর্কে মজার একটি তথ্য উঠে এসেছে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, হলুদ রুমে বসবাসকারী মানুষরা বেশি কর্মঠ হয়ে থাকেন। রান্না ঘরের কাজ ঝটপট সেরে ফেলতে চাইলে রান্না ঘরের দেয়ালে হলুদ রঙ ব্যবহার করুন। কারণ এই চঞ্চল প্রকৃতির রঙ এর চঞ্চলতা আপনার মাঝে ছড়িয়ে দিবে খুব সহজেই।