আন্তর্জাতিক

ভারতের অর্থমন্ত্রীকে স্যানিটারি ন্যাপকিন পাঠালো শিক্ষার্থীরা

কর বসানোর প্রতিবাদ জানিয়ে ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলিকে স্যানিটারি ন্যাপকিন পাঠিয়েছে দুটি বাম ছাত্র সংগঠন।

বৃহস্পতিবার ‘স্টুডেন্ট ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া’ (এসএফআই) এবং ‘অল ইন্ডিয়া ডেমোক্রেটিক ওমেন’স অ্যাসোসিয়েশন’ (এআইডিডব্লিউএ) পোস্ট করে মন্ত্রীর নিকট প্যাকেটগুলো পাঠায়।

দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয় জানায়, এসব প্যাকেটের ওপর ‘ব্লিড উইদাউট ফিয়ার’ লেখা ছিল।

ভারতে নারীদের নিত্যব্যবহার্য ‘স্যানিটারি ন্যাপকিন’-এর ওপর থেকে পণ্য পরিষেবা কর বা জিএসটি (গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স) তুলে নেওয়ার দাবি জানিয়ে আসছে ওই দুটি ছাত্র সংগঠন।

উল্লেখ্য, গত ১ জুলাই থেকে সারা ভারতে আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হয়েছে জিএসটি। এর উদ্দেশ্য ভারতের সব রাজ্যে ‘এক দেশ এক কর ব্যবস্থা’ চালু করা।

এই নীতির ফলে কোনো কোনো পণ্যে যেমন কোনো কর দিতে হচ্ছে না, আবার কিছু পণ্যে মোট চারটি স্তরে কর দিতে হচ্ছে।

এই জিএসটির তালিকায় ‘স্যানিটারি ন্যাপকিন’কে বিলাসবহুল পণ্য হিসেবে গণ্য করা হয়েছে। কিন্তু প্রতিবাদকারীদের চেয়েছিলেন নিত্যপন্য হিসেবে কর আওতায় বাইরে রাখতে।

স্যানিটারি ন্যাপকিনে জিএসটি ধার্য করা হয়েছে ১২ শতাংশ। যদিও আগে পণ্যটির ওপর ১৩ দশমিক ৭ শতাংশ কর ধার্য করা ছিল।

ভারতের শিশু ও নারীকল্যাণ উন্নয়নমন্ত্রী মানেকা গান্ধী পন্যটিতে করমুক্তি চেয়ে অর্থমন্ত্রীর কাছে চিঠি পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু জেটলির নেতৃত্বাধীন জিএসটি কাউন্সিল সেই প্রস্তাবে সাড়া দেয়নি।