Default

বয়সের ছাপ লুকাবে পালং-শাক

qত্বক থেকে বয়সের ছাপ লুকোতে কতকিছুই না করি। মুখে দামি দামি ক্রিম মাখা থেকে শুরু করে শাকসবজির ট্রিটমেন্টও নিচ্ছে অনেকেই। অথচ শীতকালের শাকসবজির প্রাকৃতিক ট্রিটমেন্ট পালং শাকেই আছে এন্টিঅক্সিডেন্ট, যার কাজ হলো কোষে অক্সিডেন্ট যোগানো। অক্সিডেন্ট ত্বকের ক্ষয় রোধ করে ত্বক সুস্থ শবল রাখে। অর্থাৎ বার্ধক্যকে জয় করতে পালং-শাকের ভূমিকা অনেক।

এছাড়া সহজলভ্য এ শাকটির রয়েছে অনেক খাদ্যগুণ। ভিটামিন ‘ডি’ ছাড়া বাকি সব ভিটামিনই এতে রয়েছে। বিশেষ করে বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন ‘ই’ এবং ভিটামিন ‘সি’র উৎস পালং শাক। প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, আয়রনসহ বেশকিছু প্রয়োজনীয় মিনারেল রয়েছে এতে।

পালং-শাকের এন্টিঅক্সিডেন্ট মস্তিষ্কের কোষগুলোকেও সতেজ এবং কর্মক্ষম রাখে। তাই মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়াতেও এর জুড়ি নেই। তাছাড়া পালং শাকের রয়েছে বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা। সব মিলিয়ে পালং শাক শীতের এক অসাধারণ সবজি!

স্বাস্থ্যরক্ষায়ঃ
১. এনিমিয়া বা রক্তশুন্যতা প্রতিরোধে পালং শাক বেশ কার্যকরী ভুমিকা পালন করে। পালং শাকে থাকা প্রয়োজনীয় ভিটামিনস এবং নিউট্রিয়েন্টস শরীরের রক্তে লোহিত রক্ত কণিকা উৎপন্ন করতে সাহায্য করে, যার ফলে রক্তশুন্যতায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায় অনেকখানি।

২. যেহেতু পালং শাক ফাইবারে সমৃদ্ধ তাই এটি নিয়মিত খাওয়ার মাধ্যমে পাকস্থলির বিভিন্ন সমস্যা যেমন কোষ্ঠকাঠিন্য, বদহজম ইত্যাদি সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

৩.গর্ভবতী মহিলাদের জন্য পালং শাক অত্যন্ত উপকারী। গর্ভে থাকা শিশুর ঠিক মতো বেড়ে উঠার জন্য পালং শাক প্রয়োজনীয় নিউট্রিয়েন্টস যোগায়। এছাড়াও নিয়মিত পালং শাক খাওয়ার মাধ্যমে মায়ের বুকের দুধের পরিমাণ এবং গুণমান অনেক বেড়ে যায়।

৪. পালং শাকে থাকা ভিটামিন এ এবং ক্যারিটনয়েডস দৃষ্টিশক্তিজনিত সমস্যা থেকে রক্ষা করবে আপনাকে।

৫. নিয়মিত পালং শাক খান, কারণ এটি হাই ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে রাখতে বেশ কার্যকর।

ভিডিও:ট্রাম্প এর ব্যক্তিগত বিমান!! এর ভিতর টা দেখলে আপনার চোখ কপালে উঠবে!!! দেখুন (ভিডিও)

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment