বিনোদন

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি থেকে গোল্ড মেডেল মিথিলার

15310603_952085091590142_86708704_nদর্শকপ্রিয় অভিনয়শিল্পী ও মডেল মিথিলা। ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি ‘শিশুর প্রারম্ভিক বিকাশ’ বিষয়ে মাস্টার্সে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম স্থান লাভ করে সিজিপিএ-৪ পাওয়ার কারণে ‘চ্যান্সেলর গোল্ড মেডেল’ অর্জন করেছেন এই তারকা। তবে মিথিলা চাকরি, অভিনয় ঠিক রেখে পড়ালেখাটা নিজের মত করেই চালিয়ে গিয়েছেন।

২০১৪-১৬ স্নাতকোত্তর শিক্ষাবর্ষে সব বিভাগের মধ্যে একমাত্র মিথিলাই সর্বোচ্চ এই সিজিপিএ পেয়েছেন। এদিকে অভিনয় ও সংগীতশিল্পী হিসেবে সুনাম কুড়ানোর পর পড়ালেখায়ও দেখালেন নিজের প্রজ্ঞার কথা।

গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের হাত থেকে তাঁর সাড়ে তিন বছরের মেয়ে আইরাকে সঙ্গে নিয়ে স্বর্ণপদক গ্রহণ করেন মিথিলা। এ সময় মন্ত্রী তার হাতে সার্টিফিকেট তুলে দেন। সেসময় তিনি বলেন, ‘চাকরি করেছি, সংসার করেছি, শুটিং করেছি। পড়াশোনায় কোনরকম ছাড় দিইনি আমি। সবকিছু সামাল দিয়েই আমাকে লেখাপড়াটা করতে হয়েছে। তবে পড়ার বিষয় ছিল আমার চাকরি ও ব্যক্তিগত জীবনের খুব কাছাকাছি। তাই আগ্রহ নিয়ে পড়েছি। এ কারণেই ফল ভালো হয়েছে। আর বাবা ও মায়ের সহযোগিতা ছাড়া আমার পক্ষে স্নাতকোত্তর শেষ করা সম্ভব ছিল না।’

তারকা খ্যাতি থাকলেও শোবিজের বাইরে তার অর্জনগুলো হয়ে উঠছে আরও অনেক নারীর অনুপ্রেরণা। যার অর্জন দেখে পিছিয়ে থাকা আরো অনেক নারী ভালো কিছু করার জন্য আরও আগ্রহী হয়ে উঠতে পারেন। মিথিলা যখন মাস্টার্সে ভর্তি হন তখন তার মেয়ে আয়রা খুব ছোট। তিনি চেয়েছিলেন আয়রার স্কুল জীবন শুরু হওয়ার আগেই যেন মাস্টার্স শেষ করতে পারেন। এবার মিথিলার সে ইচ্ছে পূরণ হয়েছে। এ নিয়ে দারুণ উচ্ছ্বাসিত তিনি।

মিথিলা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে অনার্স ও মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। তিনি বর্তমানে ব্রাকের প্রোগ্রাম ম্যানেজার অব এডুকেশন হিসেবেও কর্মরত আছেন। ঈদের পর একটিমাত্র নাটকেই অভিনয় করেছেন তিনি। নাটকের নাম ‘চিরকুটের শব্দ’। এতে মিথিলা ও সিয়াম প্রথমবারের মতো একসঙ্গে অভিনয় করেছেন।

এদিকে ভারতের প্রখ্যাত অভিনেত্রী শাবানা আজমি ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১তম সমাবর্তনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন। শিক্ষাজীবনের অর্জনে উদ্বুদ্ধ হয়ে ভবিষ্যতে আরও ভালো কাজ করার জন্য নিজের বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের অনুপ্রাণিত করেন তিনি। শাবানা আজমির বক্তব্যের পর তার হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারপারসন স্যার ফজলে হাসান আবেদ।

আরও পড়ুনঃ তাহসানের কন্ঠে গল্পটি প্রেম নাকি বিচ্ছেদের? দেখুন (ভিডিও)

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment