খেলা-ধুলা

বিপিএলএ রাজশাহীর চমক থামিয়ে চ্যাম্পিয়ন ঢাকা

gবাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ-বিপিএলের চতুর্থ আসরে রাজশাহী কিংসের চমক থামিয়ে শিরোপা জিতলো ঢাকা ডায়নামাইটস। গ্রুপপর্বে দুইবারের সাক্ষাতে দুইবারেই জয় পেয়েছিল রাজশাহী।

তবে ফাইনালে এসে তারা আর ঢাকাকে হারাতে পারলো না। ঢাকার কাছে ৫৬ রানে হেরে শিরোপা বঞ্চিত হল ড্যারেন স্যামি বাহিনী।

ঢাকার দেয়া ১৬০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১০৩ রানে গুটিয়ে যায় রাজশাহী।

শুক্রবার হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে টসে জয়লাভ করেন রাজশাহী কিংসের অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। তিনি প্রথমে ঢাকাকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান। ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান করে ঢাকা ডায়নামাইটস।

ব্যাট হাতে ঢাকার শুরুটা ভালো হয়নি। ২৩ রানে ব্যক্তিগত ১২ রান করে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে আউট হন মেহেদী মারুফ। এরপর ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে পারেননি নাসির হোসেন। তিনি ৫ রান করে আফিফ হোসেনের বলে আউট হন।

এরপর ব্যক্তিগত ৫ রানে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে সাজঘরে ফেরান ড্যারেন স্যামি। তবে এভিন লুইস ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন। তিনি ৩১ বলে ৪৫ রান করে ফরহাদ রেজার বলে আউট হন। এরপর দ্রুতই সাজঘরে ফেরেন ডিজে ব্রাভো ও আন্দ্রে রাসেল।

ব্রাভো ১৩ রান করে রান আউট হন। আর রাসেলকে সামিত প্যাটেলের বলে দারুণ এক ক্যাচে প্যাভিলিয়নে পাঠান ফরহাদ রেজা। ভালো খেলার ইঙ্গিত দিয়েও ব্যর্থ ডায়ানামাইটস দলপতি সাকিব আল হাসান।

মাত্র ১২ রান করে ফরহাদ রেজার বলে বোল্ড হন এ অলরাউন্ডার। পুরো টুর্নামেন্টেই ব্যাট হাতে তেমন আলো ছড়াতে পারেননি সাকিব। সাকিবের পর দ্রুতই ফিরে যান আলাউদ্দিন বাবু। বাবু ১ রান করেন।

তবে একপ্রান্ত আগলে রেখে দলকে চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ এনে দেন উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান কুমার সাঙ্গাকারা। সাঙ্গাকারা ৩৬ রান করে রেজার বলে আউট হন।

জবাব দিতে নেমে রাজশাহীর শুরুটাও ভালো হয়নি। দলীয় ১৫ রানে ব্যক্তিগত ৫ রানে আবু জায়েদের বলে সাজঘরে ফেরেন নুরুল হাসান সোহান। তবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৪৭ রান সংগ্রহ করেন সাব্বির রহমান ও মুমিনুল হক।

দারুণ খেলতে থাকা সাব্বির ২৬ রান করে মেহেদী মারুফের থ্রোতে রান আউটের শিকার হন। পরের ওভারেই সাকিবের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন ২৭ রান করা মুমিনুল হক।

গত ম্যাচে ব্যাট হাতে দারুণ করা জেমস ফ্রাঙ্কলিন মাত্র ৫ রান করে সানজামুলের বলে সাজঘরে ফেরেন। রাজশাহীর ভরসা ছিল ড্যারেন স্যামি। কিন্তু তিনিও ৬ রান করে সাকিবের বলে বোল্ড হন।

পরের ওভারেই আউট হন সামিত প্যাটেল। ১৭ রানে সানজামুলের বলে রাসেলের হাতে ধরা পড়েন। ব্যাট হাতে আজ ব্যর্থ মেহেদী হাসান মিরাজ। মাত্র ১ রান করে আবু জায়েদের বলে আউট হন তিনি। এরপর ফরহাদ রেজা ২ রান করে ব্রাভোর বলে আউট হন। ওই ওভারেই ব্রাভোর থ্রো করা বল কেসরিক উইলিয়ামসের হাতে লাগে। আঘাত পেয়ে মাঠের বাইরে চলে আসেন ৪ রান করা উইলিয়ামস।

আর নাজমুল হোসেন অপুকে আউট করে ১৪ বল বাকি থাকতেই রাজশাহীকে গুটিয়ে দেন আন্দ্রে রাসেল।

এলিমিনেটরে আসা নিয়েই সংশয় দেখা দিয়েছিল ঢাকার জন্য। তবে রংপুর রাইডার্সের পরাজয়ে শেষ চারে ওঠে রাজশাহী। শেষ চার ড্যারিন স্যামির অসাধারণ নৈপুণ্যে চিটাগাং এবং খুলনাকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল রাজশাহী। তবে ঢাকার কাছে হেরে শিরোপার স্বাদ পাওয়া হল না রাজশাহী কিংসের।

ভিডিও:মা-বাবার চোখের সামনে ঈগল পাখি বাচ্চাটাকে নিয়ে গেল !!! দেখুন সেই  (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment