জাতীয় রাজনীতি

বাহাউদ্দিন নাছিম যে কারণে কমিটি থেকে নিজের নাম বাদ দিতে বললেন

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠকে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। তিনি দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের উপস্থিতিতে বলেন, মাদারীপুরের অবস্থা খুব খারাপ। শাজাহান খান সবকিছু ‘ফ্রি স্টাইলে’ চালাচ্ছেন। মন্ত্রী ‘দানব’ হয়ে উঠেছেন। তাঁর হাত থেকে আওয়ামী লীগকে বাঁচান। নতুবা তাঁকে (বাহাউদ্দিন) যেন কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার বিকেলে আওয়ামী লীগের ধানমন্ডির কার্যালয়ে ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে সম্পাদকমণ্ডলীর এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সূত্র জানায়, বৈঠকে একাধিক নেতা নিজ এলাকায় বিবদমান বিভিন্ন পক্ষের মধ্যে মামলা, হামলা ও হয়রানির অভিযোগ আনেন। মন্ত্রীদের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করেন। তবে কোনো নেতা নাম প্রকাশ করে বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

শাজাহান খান আর বাহাউদ্দিনের বাড়ি মাদারীপুর সদরে। এ দুই নেতার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই দ্বন্দ্ব চলছে। শাজাহান খান সদর আসনের সাংসদ। বাহাউদ্দিন ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে কালকিনি থেকে সাংসদ হন। সেখানে আগে সাংসদ ছিলেন সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন। গত বুধবার মাদারীপুরে শাজাহান খান ও বাহাউদ্দিনের সমর্থক ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি প্রতিবাদ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে পুলিশের দুজন সদস্যসহ ১৫ জন আহত হন। পুলিশ ও র‍্যাব টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এর আগে ২ জুলাই দুই পক্ষের নেতাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। দুই পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা করেছে।

বৈঠকে উপস্থিত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক নেতা বলেন, বাহাউদ্দিনের ক্ষোভ প্রকাশের পরিপ্রেক্ষিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, মাদারীপুরের বিষয়ে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনাকে অবহিত করা হয়েছে। বাহাউদ্দিনকে মাদারীপুরের সমস্যা নিয়ে দলীয় সভাপতির সঙ্গে কথা বলার পরামর্শ দেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান বলেন, শাজাহান খান শ্রমিক লীগকে শেষ করে দিয়েছেন। তিনি আলাদা শ্রমিক সংগঠন করেছেন। শ্রমিক লীগের অনুষ্ঠানেও যান না।