আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশ সফর শেষে মিয়ানামারেও যাবেন পোপ ফ্রান্সিস

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দুর্দশা দেখতে বাংলাদেশ সফরের পাশাপাশি মিয়ানমারেও যাবেন পোপ ফ্রান্সিস। দেশটির ক্যাথলিক বিশপ কনফারেন্স এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

২৫ আগস্ট রাখাইনের সেনাঘাটিতে চরমপন্থি রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার পরপরই বৃহদাকারে ছড়িয়ে পড়ে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা। এতে সেনাবাহিনীর গণগত্যা থেকে বাঁচতে পাঁচ লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে আসে বাংলাদেশে।

জাতিসংঘ মিয়ানমার সেনাবাহিনীর এই গণহত্যাকে অভিহিত করেছে রোহিঙ্গাদের জাতিগত নিধনের প্রচেষ্টা হিসেবে। এই ঘটনায় রোহিঙ্গা মুসলিমদের ‘ভাই ও বোন’ অভিহিত করে সম্প্রতি পোপ ফ্রান্সিস বলেছিলেন, ‘তারা ভালো এবং শান্তিপ্রিয় মানুষ, যারা বছরের পর বছর ধরে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছে।’

মিয়ানমারে সংখ্যাগরিষ্ঠ বৌদ্ধদের তুলনায় খৃষ্ট ধর্মাবলম্বীদের সংখ্রা নেহাতই কম। দেশটির উত্তরাঞ্চলে কেবল ৫ লাখের কাছাকাছি খৃষ্ঠানদের বসবাস। বাংলাদেশ সফর শেষে তাদের সঙ্গে দেখা করতে মিয়ানমারে যাবেন বলেই জানিয়েছেন ক্যাথলিক বিশপ কনফারেন্স প্রধান মারিয়ানো সোয়ে নায়িং।

এই সফরেই রাখাইন পরিদর্শনেরও কথা রয়েছে পোপের। তবে সেখানে রোহিঙ্গা মুসলিমদের পোপের যে কোনো বক্তব্য মিয়ানমার সেনাবাহিনী কীভাবে নেবে- সেটাই এখন দেখার বিষয়।

সূত্র : দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস