জাতীয়

বাংলাদেশি শিশুর মানবিকতাবোধ যেভাবে নজর কেড়েছে কানাডীয় সংবাদমাধ্যমে

bangladeshi20160419123001আদিবা রহমান। বয়স মাত্র চার! কানাডার ম্যানিটোবার উইনিপেগে থাকে। এত অল্প বয়সেই মানুষের জন্য তার মন কাঁদে। আর মানুষকে সাহায্য করতে গিয়ে আজ সে জায়গা করে নিয়েছে কানাডার মূলধারার সংবাদমাধ্যমে।

মঙ্গলবার তার বাসার কাছেই স্তূপ হওয়া তুষার পরিষ্কার করতে আসা গাড়িটি উল্টে সেই তুষারেই আটকে পড়ে। তীব্র তুষারে গাড়ির চালকও ছিলেন নিরুপায়। বাসায় থেকে সবটাই দেখছিল আদিবা। মায়া হয় তার। বাবাকে বলে সে খাবার নিয়ে হাজির হয় চালকের কাছে। মেয়ের বিষণ্ন মুখ, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার মুহূর্ত আর তুষার থেকে গাড়িটি উদ্ধার হওয়ার পর তার চোখেমুখে খুশির ঝিলিকের দৃশ্য ধারণ করে ইউটিউবে আপলোড করেন বাবা মশিউর রহমান। আর তা নজর কাড়ে কানাডার মূলধারার গণমাধ্যম কানাডিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন (সিবিসি), এবং সিটিভি’র!

সিবিসি’র সাংবাদিক আদিবার বাসায় গিয়ে তার এবং তার বাবার সাক্ষাৎকার নিয়ে প্রচার করে আদিবার মানবিকতাবোধের সংবাদ।

ছোট্ট আদিবার মানবিকতাবোধ নিয়ে বাবা মশিউর রহমান সিবিসি’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, দীর্ঘক্ষণ তুষারের স্তূপে গাড়ি নিয়ে চালককে আটকে থাকতে দেখে আদিবার খুব খারাপ লাগছিল। তাই কিছু খাবার তৈরি করে মেয়েকে সাথে নিয়ে তাকে দিয়ে আসেন। চালকও খুব খুশি হয়ে ধন্যবাদ জানান।

ইউটিউবে আপলোড করা ভিডিওটি সিবিসি’র আবহাওয়া বিশেষজ্ঞ জন সওদারকে ট্যাগ করেছিলেন মশিউর।

আদিবার বাবা বলেন, ‘মানুষের প্রতি এই যে মমতাবোধ, এটাই একজন কানাডিয়ান হওয়ার সৌন্দর্য’।

আরও পড়ুনঃ ভালোবাসার পেরা কাকে বলে??নিজের চোখেই দেখুন (ভিডিও)

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment