জাতীয়

ফেব্রুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর

jআগামী ফেব্রুয়রিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত সফর করতে পারেন।

ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এম জে আকবর শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে তার সঙ্গে সাক্ষাতের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর দিল্লি সফরের কথা থাকলেও তা পিছিয়ে গেছে। শেখ হাসিনার এই সফরে দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি ও সমঝোতা স্বাক্ষরিত হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব বলেছেন, আগামী ফেব্রুয়ারির প্রথমার্ধ্বে প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরের ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। এখন দুই দেশের কর্মকর্তারা বসে তা ঠিক করবে।

আগামী ১৮ ডিসেম্বর শেখ হাসিনার নয়া দিল্লি সফরের কথা ছিল, কিন্তু এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার তা স্থগিতের কথা জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

এর আগে গত অক্টোবরে ভারতের গোয়ায় ব্রিকস-বিমসটেক আউটরিচ সম্মেলনে যোগ দিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। তখন মোদীর সঙ্গে তার বৈঠকও হয়েছিল। আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না হলেও এবারের সফর ঘিরে নানা আলোচনা চলছিল, দ্বিপক্ষীয় আলোচনার বিষয়বস্তু নিয়ে গণমাধ্যমে খবরও আসছিল নিয়মিত।

একটি সূত্র জানায়, ভারতে ‘আম্মা’ বলে খ্যাত রাজনীতিবিদ জয়ললিতার মৃত্যুকে ঘিরে দেশটির বিরাজমান পরিস্থিতি, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সম্ভাব্য চীন সফর, মুদ্রানীতি নিয়ে দেশটির বিরাজমান অস্থির পরিস্থিতির কারণেই মূলত পূর্ব নির্ধারিত সময়ে সফরের ব্যাপারে আগ্রহী হননি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আর তাই, দুই দেশের পররাষ্ট্র কর্মকর্তাদের সম্মতিতে গুরুত্বপূর্ণ এ সফর স্থগিত করা হয়েছে।

শনিবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় নানা বিষয়ে আলোচনা করেন এম জে আকবর। আলোচনায় শেখ হাসিনার হাঙ্গেরি সফরের সময় তুর্কমেনিস্তানে বিমানের জরুরি অবতরণের বিষয়টিও আসে।

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment