অন্যরকম খবর আন্তর্জাতিক

প্রিয় আইসক্রিম গলা নিয়ে আর ভাবনা নয়!

পছন্দের আইসক্রিমটি হাসি হাসি মুখ করে হাতে তুলে তো নেন কিন্তু খেতে গিয়েই ঘটে যত বিপত্তি। আইসক্রিমে প্রথম কামড় দেওয়া মাত্রই তা গলতে শুরু দেয়।

তারপর মুখে-হাতে-জামায় পড়ে সে একাকার কাণ্ড। ফলে গোটা আইসক্রিম আর খেয়েই ওঠা হয় না। কাপের চেয়েও বেশি স্টিকের ক্ষেত্রে এই সমস্যায় পড়েন আইসক্রিম প্রিয় মানুষরা। কিন্তু এবার আর তেমনটা হবে না। জাপানি বিজ্ঞানীরা এমন এক পদ্ধতি আবিষ্কার করে ফেলেছেন, যাতে আপনার সাধের আইসক্রিম আর গলে যাবে না। ফলে শেষ কামড় পর্যন্ত নিশ্চিন্তে তা খেতে পারবেন আপনি।

জাপানের কানাজাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানাচ্ছেন, শেষ কামড় পর্যন্ত আইসক্রিমকে গলতে না দেওয়ার উপায় খুঁজে পেয়েছেন তাঁরা। সাধারণত কোন বা বোল আইসক্রিম হাতে নেওয়ার পর খুব দ্রুত গলতে শুরু করে। কিন্তু নতুন এই পদ্ধতিতে শেষ পর্যন্ত আইসক্রিমের আকার একেবারে একই থাকবে বলে দাবি গবেষকদের।

একটি বিশেষ উপাদানের সন্ধান পাওয়া গেছে, যা আইসক্রিমকে কোনওভাবেই গলতে দেবে না। সেটি প্রয়োগ করে আইসক্রিমকে ঘরের ভিতরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় প্রায় তিন ঘণ্টা রেখে দেখা গেছে, তা গলছে না। এমনকী পাঁচ মিনিট ধরে হেয়ার ড্রায়ারের গরম হাওয়া আইসক্রিমে দিয়েও পরীক্ষা করেছেন গবেষকরা। কিন্তু তাতেও এর আকারে কোনও পরিবর্তন ঘটেনি।

কানাজাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তমিহিসা ওটা জানান, স্ট্রবেরি থেকে পলিফেনল তরল বের হয়। সেই তরলই ইনজেক্ট করা হচ্ছে আইসক্রিমে। আর এর ফলেই জল ও তেল জমাট বেঁধে থাকছে। অর্থাৎ যে আইসক্রিমে এই তরল ইনজেক্ট করা হবে, তা সহজে গলবে না। ফলে শেষ পর্যন্ত স্বাদের আইসক্রিমের সাধ নিতে পারবেন আপনি।

চকোলেট, ভ্যানিলা, স্ট্রবেরি, যে কোনও ফ্লেভারের আইসক্রিমেই এই তরল প্রয়োগ করা যাবে। এতে স্বাদে কোনও হেরফেরও হবে। আবার আপনার হাত বা জামাকাপড় নোংরাও হবে না।