খেলা-ধুলা

প্রতিদিন রোনালদোর আয় কত জানেন?অবাক না হয়ে উপায় নাই

44103_ronaldoক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর প্রতিদিনের আয় দেখে অনেকের চক্ষু চড়কগাছ। রিয়াল মাদ্রিদের এ পর্তুগিজ তারকা প্রতিদিন আয় করেন ৫২০,০০০ পাউন্ড! সম্প্রতি তার আয়ের এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। কয়েকদিন আগে রোনালদোর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে যে, তিনি গত তিন বছরের স্পেনের ১৫০ মিলিয়ন পাউন্ড কর ফাঁকি দিয়েছেন। এতে বার্সেলোনার তারকা লিওনেল মেসি ও নেইমারের মতো তাকেও শাস্তি পেতে হবে।

কর ফাঁকি প্রমাণিত হলে জরিমানার সঙ্গে তার ৬ বছর জেল হতে পারে বলেও জানা যাচ্ছিল। কিন্তু শুরু থেকে কর ফাঁকির অভিযোগ অস্বীকার করে আসছিলেন রোনালদো। আর তার ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ তো এমন অভিযোগে অবাক। তারা এক বিবৃতিতে জানায়, রোনালদোর কর দেয়ার মানসিকতাকে যে কারও সম্মান দেখানো উচিৎ। তার কর দেয়ার মানসিকতা সবার জন্য অনুকরণীয়।

তবে অভিযোগ ওঠার পর থেমে নেই রোনালদো। তার অর্থনৈতিক ব্যাপারের হিসাব-নিকাশ রাখা প্রতিষ্ঠান ‘গেস্টিফুট’ সম্প্রতি রোনালদোর আয় এবং কর প্রদাণের কাগজপত্র প্রকাশ করেছে। রোনালদো যে, স্পেন থেকে আয় করা অর্থের পুরোপুরি কর দিয়েছেন সেটা তারা দেখিয়েছে।

এমন কি ২০১৫ সালে রোনালদো মোট কত আয় করেছেন সেটাও তারা দেখিয়েছে। সেখানে জানা গেলো, গত বছরে রোনালদোর মোট আয় ১৯১ মিলিয়ন পাউন্ড। এতে বছরের একদিনে তার আয় দাঁড়ায় ৫২০,০০০ পাউন্ড। তবে তার এই আয়ের মাত্র ১০ শতাংশ হয় স্পেন থেকে। বাকি ৯০ ভাগ অর্থ আয় করেন বিশ্বের নামিদামী সব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে করা তার চুক্তি থেকে। এই হিসেবে স্পেন থেকে ২০১৫ সালে রোনালদোর আয় ১৯.৮ মির্লিয়ন পাউন্ড। এরমধ্যে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে বেতন হিসেবে প্রতি সপ্তাহে পান ৩৬৫,০০০ পাউন্ড।

এছাড়া বছরের বাকি ১৭০ মিলিয়ন পাউন্ডের বেশি আয় করেছেন অন্য দেশের বিভিন্ন কোম্পানির চুক্তি থেকে। রোনালদো স্পেন থেকে যে অর্থ আয় করেছেন তার পুরোটার কর যথাযথভাবে দিয়েছেন বলেও তারা প্রমাণ দিয়েছে। এতে রোনালদোর বিরুদ্ধে ১৫০ মিলিয়ন পাউন্ড কর ফাঁকি দেয়ার অভিযোগ অবান্তর বলে জানিয়েছে ‘গেস্টিফুট’। রোনালদোর এক বছরের আয় প্রকাশ করার পর অনেকের চক্ষু চড়কগাছ।

বার্সেলোনার স্ট্রাইকার লিওনের মেসির আয় তারচেয়ে কম হলেও এত কম হবে তা অনেকে ভাবতে পারেননি। রোনালদো গত বছর মেসির চেয়ে প্রায় তিনগুণ বেশি অর্থ আয় করেছেন। বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার মেসি ২০১৫ সালে আয় করেন ৫৬ মিলিয়ন পাউন্ড। আর ফুটবল থেকে অবসর নিলেও ফুটবলীয় কর্মকা-ে জড়িত ডেভিড বেকহ্যামের বর্তমান আয়ও অনেক। তবে রোনালদোর আয়ের তুলনায় কিছুই না। ইংল্যান্ডের সাবেক এ ফুটবলার গত বছর আয় করেন ১৫ থেকে ২০ মিলিয়ন পাউন্ড।
দীর্ঘদিন ধরে বছরে সবচেয়ে বেশি অর্থ উপার্জনকারী খেলোয়াড়দের তালিকার শীর্ষে ছিলেন মার্কিন বক্সার ফ্লয়েড মেওয়েদার। তবে তাকে টপকে চলতি বছরের শুরুতে বছরের সবচেয়ে বেশি অর্থ উপার্জনকারী খেলোয়াড় হন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

স্পন্সর থেকে রোনালদোর আয়ের সিংহ ভাগ আসে বিখ্যাত ক্রীড়াসামগ্রী নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘নাইকি’, আন্ডারওয়ার ‘আরমেনি’, ঘড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ‘ট্যাগ হয়্যার’ থেকে। এছাড়া ‘সিআর সেভেন’ নামে আন্ডারওয়ার, হোটেল ও সুগন্ধি রয়েছে। ২০১৪ সালে রোনালদোর সঙ্গে বছরে ১৪.১ মিলিয়ন পাউন্ডের চুক্তি করে নাইকি। কোনো ফুটবলারের সঙ্গে কোনো প্রতিষ্ঠানের সর্বকালের সবচেয়ে বেশি অর্থের বার্ষিক চুক্তি এটি।

ভিডিও নিউজ : জন্টি রোডসকে কেন পৃথিবীর সেরা ফিল্ডার বলা হয়; নিজের চোখেই দেখুন ভিডিওতে। 

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment