slider অর্থনীতি-ব্যবসা জাতীয়

প্রতিটি ব্যাংক একাউন্ট থেকে বছরে কত টাকা কাটা হয়! জানলে অবাক হবেন

বহুল আলোচিত আবগারি শুল্ক নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে ব্যাংক আমানতের এক লাখ টাকার সুদ প্রসঙ্গে জাতীয় সংসদের চাঁদপুর-৫ আসন থেকে নির্বাচিত সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম বলেছেন, এক  লাখ টাকা ব্যাংকে রাখলে ৪ শতাংশ হারে সুদ পাওয়া যায় ১২৫০ টাকা। সেখান থেকে ৮০০ টাকা কেটে নেবেন! থাকবে ৪৫০ টাকা। এই ৪৫০ টাকা থেকে আবার ১৮৭ টাকা কাটা পড়বে ইনকামট্যাক্স হিসাবে। থাকবে আর ২৬৩ টাকা। এরপর আবার ৩০০ টাকা কেটে নেবে ব্যাংক। তাহলে দেখা যাচ্ছে ১২৫০ টাকার বাইরে থেকেও টাকা কাটা যাবে। তাই সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে আবগারি শুল্ক প্রত্যাহারের আহ্বান জানাচ্ছি। আজ সোমবার বিকেলে জাতীয় সংসদে ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব তথ্য জানান।
রফিকুল ইসলাম বলেন, অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যে স্ববিরোধিতা রয়েছে। তিনি একদিকে বলছেন পেনশনের টাকা সুদমুক্ত রাখবেন। আবার আরেক দিকে ব্যাংক আমানতের ওপর ৮০০ টাকা কর আরোপ করেছেন। এদিকে বাজেট পাসে নিজের কোনো ভূমিকা নেই বলে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, বাজেট পাসের সময় প্রধান হুইপ ও হুইপরা যেদিকে হাত নাড়ান, আমরাও সেদিকে হাত নাড়াই। বাজেট পাসে আমাদের কোনো ভূমিকা থাকে না। তিনি আরও বলেন, আমরা বাজেট পাশ করতে বাধ্য হই। এভাবে চলতে থাকলে সত্যিকার অর্থে যে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাই সেটা হবে না।
কার্যপ্রণালি বিধির ৭০ অনুচ্ছেদে কিছুটা পরিবর্তনের দাবি তুলে এই এমপি বলেন, বাজেট পাসের আগে সংসদ সদস্যদের মতামত দেওয়ার সুযোগ দেন। তাহলে দেখবেন অর্থমন্ত্রী আর তার বক্তব্যে অনঢ় থাকতে পারবেন না। অর্থমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, ভ্যাট বৃদ্ধিতে আয় বাড়বে ১২০০ থেকে ১৪০০ কোটি টাকা। ৪ লাখ কোটি টাকার বাজেটে ১৪০০ কোটি টাকা না এলে, সরকারের তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না। জনগণের ওপর করের বোঝা না বাড়িয়ে ব্যাংক থেকে লুটপাট হওয়া ৮ থেকে ১০ হাজার কোটি টাকা উদ্ধার করেন। তাহলে জনগণের ওপর ভ্যাট বাড়াতে হবে না।

Advertisements





সর্বশেষ খবর