Advertisements
আন্তর্জাতিক

পোষা টিয়াপাখি ধরিয়ে দিল পরকীয়ায় লিপ্ত মালিককে!

আরব দেশগুলোতে স্ত্রীর পাশাপাশি যৌনদাসী রাখা যেন অতি স্বাভাবিক ঘটনা। অনেকটা ‘ওপেন সিক্রেট’। এই ঘটনার ‘ভিলেন’ সেই গৃহকর্তা অনেকদিন ধরেই কাজের মেয়েকে ফুসলাতেন। মেয়েটির পক্ষ থেকেও জবাব ইতিবাচক ছিল। অপেক্ষা ছিল শুধু সুযোগের। স্ত্রী বাড়িতে না থাকায়, সেই সুযোগও মিলে গেল। স্ত্রী না থাকায় একদিন সেই কাজের মেয়ের সঙ্গে যৌনতায় মেতে উঠলেন কুয়েতের বাসিন্দা সেই ব্যক্তি। ভেবেছিলেন কেউ জানতে পারবে না। কিন্তু হলো উল্টোটা!

রক্ষণশীল কুয়েতে পরকীয়া অবৈধ। এবং দোষী প্রমাণিত হলে সশ্রম কারাদণ্ড হতে পারে।এই ঘটনাটি সত্যি কোনো মানুষ জানতে পারেনি।
তবে বাড়িতে পোষা টিয়াপাখিটি জেনে গিয়েছিল। পরের দিন মনিবের স্ত্রী খাওয়াতে এলেই গরগর করে টিয়া বলতে শুরু করে দেয়, ‘রাতে তো ধামাকা হয়েছে। ‘ শেখানো কথা আওড়াতে তোতাপাখি যে পটু হয়, তা নতুন নয়। পোষা টিয়া বুলি শুনেই রাগে আগুন হয়ে থানায় যান সেই নারী।

পুলিশের কাছে গিয়ে স্বামীর কুকীর্তি ফাঁস করেন স্ত্রী। অভিযোগের প্রমাণ স্বরূপ টিয়ার কথাই ফের শোনান তিনি। কিন্তু ওই নারীর অভিযোগ নিতে অস্বীকার করে পুলিশ। টিয়ার কথা প্রমাণ হিসেবে যথেষ্ট নয় বলেই জানায় পুলিশ। অভিযুক্তকে আদালতে পেশ করা হলে এই প্রমাণ ধোপে টিকবে না। আপাতত সেই নারী নিশ্চয় স্বামীকে হাতেনাতে ধরার প্ল্যান করছেন।

Advertisements