Advertisements
খেলা-ধুলা

পাণ্ডিয়া সোশ্যাল মিডিয়ায় জাদেজা নিয়ে যে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন

গত রোববার সদ্য শেষ হওয়া চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যখন একের পর এক ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হয়ে ফিরছেন, তখন দলকে একা হাতে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। কিন্তু সেই পাণ্ডিয়াও আউট হয়ে গেলে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের জয় একপ্রকার নিশ্চিত হয়ে যায়। রবীন্দ্র জাদেজার ভুলেই রান আউট হতে হয় তাঁকে। আর তারপরই সতীর্থর সঙ্গে পাণ্ডিয়ার মনোমালিন্যের ঘটনা সামনে আসে।

২৭ তম ওভারে হাসান আলির বলে শট নেন জাদেজা। জাদেজা কল করলে পাণ্ডিয়া রান নিতে এগিয়ে গেলেও জাদেজা দাঁড়িয়েই থাকেন। তখনই রান আউট হন পাণ্ডিয়া। ৭৬ রানে ফেরেন তিনি। আর ভারতের হারের পর এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া তোলপাড় হয়ে ওঠে। পাণ্ডিয়ার সুন্দর ইনিংস শেষ করে দেওয়ার জন্য কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয় জাদেজাকেই। এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে নানা রসিকতা।

অনেকেই কটাক্ষ করে বলেন, ‘কাটাপ্পা’ জাদেজার হাতেই খুন হলেন ‘বাহুবলী’ পাণ্ডিয়া। কেউ কেউ আবার লিখেছেন, জাদেজার জন্যই দলের এমন ভরাডুবি হল। তাঁকে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া উচিত।

টুর্নামেন্টের ফেভরিট টিম ইন্ডিয়ায় অপ্রত্যাশিত হার মেনে নিতে পারেননি ভারতীয় সমর্থকরা। আর তারই বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে নেটদুনিয়ায়। কিন্তু স্বয়ং হার্দিক সোশ্যাল মিডিয়ায় সতীর্থকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসায় অবাক হয়েছে গোটা ক্রিকেটমহল। টুইটারে পাণ্ডিয়া জাদেজার নাম না করেই লেখেন, “বিপক্ষ নয়, নিজের লোকই আমায় হারিয়ে দিল (হামে তো আপনোনে লুটা, গ্যায়রো কাঁহা দম থা)।”

পাকিস্তানের কাছে হারের পর যে ভারতীয় ড্রেসিং রুমেও ভাঙন ধরেছে, এই টুইটেই তা অনেকটাই স্পষ্ট। প্রকাশ্যেই জাদেজার উপর ক্ষোভ উপরে দেওয়ায় শুরু হয় বিতর্ক। পরে অবশ্য সেই টুইট ডিলিটও করে দেন ভারতীয় অলরাউন্ডার।

অতীতে ভারতীয় ড্রেসিং রুমে বিরাট-গম্ভীর বা সৌরভ-ধোনির মনোমালিন্যের কথা প্রকাশ্যে এসেছিল। কিন্তু এভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরাসরি কেউ কাউকে দোষারোপ করেননি। অর্থাৎ পাকিস্তানের কাছে হারের প্রভাব শুরু দেশবাসীর উপরই নয়, ভারতীয় শিবিরের অন্দরেও পড়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের আগে চিন্তা একটাই, সেই আগুনের আঁচ আরও ছড়াবে না তো?

Advertisements