খেলা-ধুলা

পাকিস্তানের কাছে হেরে, খোলাসা হয়ে পড়লো ভারতীয় ক্রিকেটের অন্তর্দ্বন্দ্ব

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে হারার পর পরই খোলাসা হয়ে পড়লো ভারতীয় ক্রিকেটের অন্তর্দ্বন্দ্ব।অধিনায়ক বিরাট কোহলী এরই মধ্যে ভারতের ক্রিকেট উপদেষ্টা কমিটি ও বোর্ড কর্মকর্তাদের জানিয়ে দিয়েছেন- কুম্বলের ব্যাপারে তার তীব্র আপত্তি আছে। তার সঙ্গে আর একত্রে কাজ চালিয়ে নেয়া সম্ভব নয়।

ঠিক এক বছর আগে অনিল কুম্বলেকে যখন ভারতের প্রধান কোচ হিসেবে নিযুক্ত করা হয়, তখন থেকেই তার রেকর্ড প্রায় নিখুঁত বলা চলে। তার কোচিংয়ে চারটে হোম সিরিজ ভারত অনায়াসে জিতেছে, উঠেছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে।

 

কিন্তু এই টুর্নামেন্ট শুরুর আগে থেকেই ক্যাপ্টেন কোহলির সঙ্গে তার মতবিরোধ প্রকাশ্যে চলে আসে, যদিও মুখে অন্তত কোহলি তা অস্বীকার করে গেছেন।

তবে অধিনায়কের কথায়ই যে কোচ বদল করবেন তা কিন্তু ভাবছেন না ভারতীয় বোর্ডের কর্তারা। বর্তমানে ভারতের ক্রিকেট উপদেষ্টা কমিটির তিন সদস্য হিসেবে রয়েছেন শচীন টেন্ডুলকার, সৌরভ গাঙ্গুলি আর ভিভিএস লক্ষ্মণ।

এরা তিনজনেই কুম্বলের সতীর্থ ক্রিকেটার এবং তাদের ভোট কিন্তু এখনও কুম্বলের দিকেই। তাদের কথা কুম্বলেকে সরানো হবে কোন যুক্তিতে? শুধু ক্যাপ্টেনের পছন্দ নয় বলে?

কোহলী-কুম্বলে এই দ্বন্দ্বে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়েছেন ভারতীয় বোর্ডের কর্তারাও।

বোর্ডের সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত প্রশাসকরা কুম্বলেকে রাখারই পক্ষপাতী। কিন্তু বোর্ডের দৈনন্দিন কাজকর্ম যারা চালান, যেমন ভারপ্রাপ্ত সচিব অনিরুদ্ধ চৌধুরী বা সিইও রাহুল জোহরি- এরা আবার কুম্বলেকে সরাতে চান।

কোহলীর বিরোধীতার কারণেই অসাধারণ পারফরম্যান্সের পরও নড়বড়ে হয়ে উঠেছে কুম্বলের চাকরি।

এই পরিস্থিতিতে আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে আদৌ কোচ কুম্বলেকে পাঠানো হবে কি না, তা নিয়ে ভারতীয় বোর্ড এক নজিরবিহীন সংকটে পড়েছে।

Advertisements