বিনোদন

নির্মাতা রনি সদস্যপদ গেল, এবার রফিক?

শাকিব খান ও বুবলী অভিনীত ‘রংবাজ’ ছবির নির্মাতা শামীম আহমেদ রনির সদস্যপদ বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। রবিবার এফডিসিতে পরিচালক সমিতি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে তার সদস্যপদ বাতিল করে আগের সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়। দুপুর ১২টা থেকে বিকাল পৌনে ৪ টা পর্যন্ত চলা বৈঠকে সমিতি সভাপতি ছাড়াও মহাসচিব বদিউল আলম খোকন ও অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন। শামীম রনির পর আরো এক পরিচালক বিপাকে পড়তে চলেছেন। তিনি হচ্ছেন রফিক শিকদার।
টালিগঞ্জের পড়তি অভিনেত্রী প্রিয়াংকা সরকারকে ঢালিউডে নিয়ে এসেছিলেন রফিক শিকদার। এই নির্মাতা তার দ্বিতীয় ছবি ‘হৃদয় জুড়ে’র নায়িকা করে প্রিয়াংকাকে নিয়ে আসেন ঢাকায়। কিছুদিন শুটিংও করেন। সম্প্রতি প্রিয়াংকার বিরুদ্ধে অপেশাদারিত্বের অভিযোগ তুলে যখন ফেসবুকে ঝড় উঠিয়ে দিলেন রফিক, ঠিক তখনই পাল্টা আক্রমণ করে বসলেন প্রিযাংকা। ভারতীয় মিডিয়ার কাছে রফিক শিকাদারের অপেশদারিত্ব নিয়ে অভিযোগ তুলেছেন প্রিয়াংকা।
প্রিয়াংকা বলেছেন,’অকারণেই পরিচালক শুটিংয়ের সময় আমার সঙ্গে কাজের বাইরে অন্যান্য বিষয় নিয়ে গল্প করতে চাইতেন। সময়ে-অসময়ে মেসেজ করতেন নানা রকম। যেগুলো কাজ সংক্রান্ত নয়! মানে বাড়তি অ্যাটেনশন পাবার চেষ্টা এবং অনেক সময়েই আমি এর প্রতিবাদও করেছি কিন্তু তবুও উনি নিজেকে সংশোধন করেননি। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় উনি আমাকে বারবার মেসেজ করতেন। বলতেন, উনি নাকি আমাকে মিস্ করছেন! একটা সময়ের পর আমাকে বিয়ের প্রস্তাবও দেন! বারবার ব্লক করা সত্ত্বেও উনি থামেননি। উনি সম্প্রতি নিজের ফেসবুক পোস্টেও ব্যক্তিগত আক্রমণ করেন আমাকে। এসব সত্যি অত্যন্ত দুঃখজনক’।
শোবিজে রফিককে নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে। তিনি দেশের মান ডুবিয়েছেন বলে অনেকে মন্তব্য করেছেন। তার সাফাইয়ে কেউ খুশি হতে পারছেন না। বিদেশি শিল্পী নিয়ে কাজ করেছেন। পরে আবার সেই শিল্পীর কাছেই নাস্তানাবদু হয়েছেন। পরিচালক সমিতি তার ব্যাপারে অচিরেই অ্যাকশনে যাবে বলে জানা গেছে। অনন্য মামুন এবং শামীম রনির পর এবার হয়তো রফিক সদস্যপদ হারাতে পারেন। এমনটাই ধারণা সংশ্লিষ্টদের।