বিনোদন

‘নিজেকে সময় দিতে দেশের বাইরে গিয়েছিলাম’

মধ্য দুপুরে তপ্ত রোদে উত্তরার অলিতে গলি পার হয়ে নিজের ছায়া মারিয়ে লেক ড্রাইভ লেনের ‘আনন্দ বাড়ি’ স্পটে হাজির হলাম। এখানে শুটিং চলছে হিমেল আশরাফ পরিচালিত ঈদের বিশেষ নাটক ‘বাড়িওয়ালা’র। আমরা এসেছি সেই নাটকের ‘বাড়িওয়ালা’র মেয়ের খোঁজে। মানে চরিত্রটিতে যে অভিনয় করছেন তাকে খুঁজতে। এতে অভিনয় করছেন সাবিলা নূর। তিনি গত চার মাস ধরে উধাও ছিলেন। আর এই চার মাসে নানা গুঞ্জনের মধ্যে দিয়ে এক পর্যায়ে গায়েব হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। তখন তাকে নিয়ে দেশে গুঞ্জন চলেছে অনবরত। সেই গুঞ্জনের মধ্য দিয়ে হুট করে দেশে আসেন অভিনেত্রী সাবিলা নূর।


 কেমন আছেন আপনি?
সাবিলা নূর: এই তো বেশ ভালো আছি এখন। শুটিংয়ে আসলেই ভালো লাগে।

 তা এতো দিন সেই ভালো লাগা থেকে দূরে কেন?
সাবিলা নূর: মানসিকভাবে বেশ খারাপ অবস্থা ছিল। তাই আর শুটিংয়ে মনোযোগি হতে পারিনি। তাই নিজেকে একটু সময় দিয়েছি। তাই শুটিং থেকে একটু দূরে থেকেছি।

 একটু না অনেক দূরে। বাংলাদেশ থেকে আমেরিকা কিন্তু অনেক দূরে। তাইনা?
সাবিলা নূর: (হাসি দিয়েই) তা ঠিক। এখান থেকে অনেক দূরে আমেরিকা। আমার বড় বোন ওখানে থাকে। নিজেকে সময় দিতে গিয়ে ভাবলাম আর দেশে থেকে কোন কাজ নেই। পরিবেশ অনেক সময় মানসিক অবস্থা ভালো করে আবার খারাপও করে। তাই ভাবলাম নতুন পরিবেশ দরকার। চলে গেলাম।

 তা আপনার দেশ ছেড়ে যাওয়া এবং ফিরে আসা কিন্তু হুটহাট। এই হুটহাট কেন?
সাবিলা নূর: আমি গত চার মাস আগে নিজেকে নিয়ে এতটাই ব্যস্ত ছিলাম যে আসলে কাকে কী বলে যেতে হবে আমার মাথায় আসেনি। মনে হলো আমার দেশে থাকা উচিত হচ্ছে না। তাই থাকিনি। আর আপার ওখানেও অনেক দিন যাওয়া হয় না। সব মিলিয়ে হুট করেই চলে যাওয়া।

 কিন্তু আপনার অবর্তমানে দেশে গুঞ্জন ওঠেছিল আপনি আমেরিকা রিহ্যাব এর গিয়েছেন। আসলে ঘটনাটা কী?
সাবিলা: আমি আসলে নিজেও জানি না। কে বা কারা এই গুঞ্জনটি ছড়িয়েছে। এই ধরনের গুঞ্জন উঠার কোনো কারণই ছিল না যে আমাকে রিহ্যাবে থাকতে হবে। আমি মানসিকভাবে একটু বিপর্যস্ত থাকায় আসলে দেশের বাইরে গিয়েছিলাম। আমিও মানুষ আমারও আবেগ আছে, বিবেক আছে। তাই যে কোন কিছুই ঘটতে পারে। তাই বলে একেবারে এভাবে মিথ্যা গুঞ্জন ছড়ানো ঠিক হয়নি। সেরকম কিছুই হয়নি। চাইলে আমেরিকা আমার আপুর সঙ্গে কথা বলে দেখতে পারেন।
 আচ্ছা তা না হয় বোঝা গেল। কিন্তু যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছিল সেটি আসলে কী?
সাবিলা নূর: এটা খুব সজহ কথা। আমি দেশে নেই প্রথমে রিহ্যাব তারপর ভিডিও। এই গুঞ্জনগুলো আসলে যারা ছড়িয়েছে তারা হতো আমার ক্যারিয়ারটা নষ্ট করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। আমি সত্য ছিলাম। তাই আমার কোন ক্ষতি হয়নি। আর আমেরিকায় বসে যখন এই খবরগুলো আমার কানে আসছিল তখন আমার মানসিক অবস্থা আরও খারাপ হয়ে যাচ্ছিল। আমি ঠিক বুঝতে পারছিলাম কী হচ্ছে এগুলো। আমি কল্পনাও করতে পারিনি আমাকে নিয়ে এতো গুঞ্জন হবে।

 শুধুই কি মানসিক শান্তি জন্য দেশের বাইরে যাওয়া?
সাবিলা নূর: নিজের মানসিক অবস্থা, আপুর সঙ্গে দেখা হওয়া অনেকদিন পর। আরও একটি বিষয় আছে সেটা হলো সেখানে তিন মাসেরে একটি কোর্স করেছি আমি। আমার পড়াশুনার জন্য ওটা দরকার ছিল। যাইহোকে এসব নিয়ে আর কথা বলতে চাই না। ফিরে এসেছি আবার দেশে। তাই শুধু অভিনয়েই মন দিতে চাইছি।

 আপনার ফেসবুকে একসময় নিয়মিত ছিলেন। এখন আর দেখতে পাওয়া যায়না। ঘটনা কী?
সাবিলা নূর: ঘটনা কিছুই না। আইডি হ্যাক হয়ে গিয়েছে অনেক আগেই। এখন রিকোভারির কাজ চলছে। খুব সম্ভব চেষ্টা করছি আবারও ফেসবুকে নিয়মিত হওয়ার।

 দেশে আসলেন কবে আর শুটিং শুরু করেছেন কবে থেকে?
সাবিলা নূর: এসেছি গত ৩ আগস্ট। আর শুটিং শুরু করেছি ৬ তারিখ থেকে। চার মাস পরে হিমেল আশারাফের এই নাটক দিয়েই আবার শুরু করলাম অভিনয়।

 শুটিং এ ফিরে কেমন লাগছে?
সাবিলা নূর: যেহেতু অভিনয়টা ভালোবাসি অনেক তাই শুটিং এ ফেরার অনুভূতিটা ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না। তবে এতটুকু বলতে পারি ভালোবাসার অনুভূতি বেশ ভালো।

 এই নাটকের গল্পের চরিত্র কেমন?
সাবিলা নূর: আমি যে ধরনের কাজ করি তার থেকে একটু ব্যতীক্রম। সব সময় মাথায় ওড়না দিয়ে ঘুরে বেড়ানো একটি শান্ত মেয়ে। যে একজন বাড়িওয়ালার মেয়ে। মিশু সাব্বির হচ্ছে আমাদের বাসার ভাড়াটিয়া। তার সঙ্গেই আমার ছাদে প্রেম চলে। এরকমই গল্পটা।

ঈদকে কেন্দ্র করে কী করছেন সামনে?
সাবিলা নূর: সামনে হিমেল আশরাফেরই আরও তিন চারটা নাটকে অভিনয় করবো। তাছাড়াও আরও অনেক নির্মাতাই আমাকে বলছেন অভিনয় জন্য। চেষ্টা করছি ভালো ভালো কাজ করার। সূত্র- প্রিয়.কম

Advertisements