অপরাধ/দুর্নীতি

নরসিংদীতে বাড়িতে ঢুকে নারীকে জবাই করে হত্যা

নরসিংদীতে দীপ্তি নামে এক নারীকে জবাই করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে পৌর শহরের মধ্যকান্দা পাড়া দেশপ্রিয় রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে পুলিশ বলছে এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।

খবর পেয়ে সিআইডি ও গোয়েন্দা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন হিন্দু ঐক্য জোট পরিষদের নেত্রীবৃন্দ।

নিহতের স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত দীপ্তি ভৌমিক (৪৫) মাধবদী সেকেরচরের বাবুরহাটের কাপর ব্যাবসায়ী প্রদীপ সাহার স্ত্রী। দুপুর ১টার দিকে তার ছেলে বাসায় ফিরে মায়ের জবাই করা লাশ পড়ে থাকতে দেখে। পরে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে যায়। স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়ার পর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নিহেতর ছেলে প্রিতম জানায়, সকাল সাড়ে ৯টায় পরীক্ষা দিতে স্কুলে যাই। দুপুর একটার দিকে বাসায় ফিরে ঘরের দরজা খোলা অবস্থায় দেখে মাকে ডাকাডাকি করি। কোন সাড়া শব্দ পাওয়া যাচ্ছিলনা। পরে বিছানার উপর মাকে গলা কাটা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখি।

নিহতের মেয়ে প্রিয়া জানায়, ঘরের ভেতরে সব এলোমেলো। আলমিরা ভাঙা। মনে হচ্ছে বাড়িতে ডাকাতি করতে এসেছিল। তাদের কাউকে চিনে ফেলায় মাকে মেরে ফেলে সম্ভবত?

সদর মডেল থানা পুলিশের ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন, নিহতের পরিচিতদের মধ্যেই কেউ এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ডাকাতির বিষয় উড়িয়ে দিয়ে নরসিংদী সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি সার্কেল) মো. শাহরিয়ার আলম বলেন, হত্যার ধরন দেখে ধারণা করা হচ্ছে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। ডাকাতি হলে ঘরে থাকা স্বর্ণাকারসহ মূলবান জিনিস পত্র কাছে থাকলেও সেগুলো নেয়া হয়নি। তাছাড়া বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে পরিষ্কার করে বলা যাবে।