Advertisements
বিনোদন

‘নবাব’ ও ‘বস ২’ মুক্তির জন্য রাস্তায় শিল্পীরা, তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে শাকিব-ফারিয়া-আজিজের

একদিকে রাস্তা বন্ধ করে যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘বস-টু’ ও ‘নবাব’ মুক্তির আপত্তি নিয়ে চলচ্চিত্রশিল্পী ও কলাকুশলীরা বিক্ষোভ করছে। যৌথ প্রযোজনার নামের প্রতারণা বন্ধের এই আন্দোলনে একাত্মতা ঘোষণা করে চলচ্চিত্রের আর এক ডজন সংগঠন।

অন্যদিকে ছবি দুটির কুলাকুশলীরাও সক্রিয় মুক্তি নিয়ে। আর বিষয়টি তুলে ধরতে রবিবার (১৮ জুন) দুপুরে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর সঙ্গে বৈঠক করেছে ছবি দুটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া ও কলাকুশলীরা।

তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ‘নবাব’-এর নায়ক শাকিব খান ও ‘বস-টু’-এর নায়িকা নুসরাত ফারিয়া। তারা ছাড়াও তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজের প্রধান আবদুল আজিজ।

বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আজিজ নিজে। তিনি বলেন, ‘ছবি দুটি ঈদে মুক্তি নিয়ে আজ একটা ফল আসবে। আমাদের আলোচনা ইতিবাচক হয়েছে।’

এদিকে যখন আবদুল আজিজ ও শিল্পীসহ মিটিং চলছে তখন রাস্তায় আন্দোলন করছিল চলচ্চিত্র ঐক্যজোট।

যৌথ প্রযোজনার ছবির নামে অনিয়মের প্রতিবাদে অবস্থান ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে এই জোট। রবিবার (১৮ জুন) বেলা ১১টায় এ ধর্মঘট শুরু হয়। এসময় বিএফসিডির সামনে তারা অবস্থান নেন। এরপরই আন্দোলনকারীরা চলে যান রাজধানীরর ইস্কাটনে অবস্থিত চলচ্চিত্র সেন্সরবোর্ডের সামনে। বেলা ১টা ১০ মিনিটের তারা ঘেরাও কর্মসূচি দেন। বিষয়টি তথ্য মন্ত্রণালয় অবগত হওয়ার পর আলোচনার জন্য বসার কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী।

আর সে অনুযায়ী আন্দোলনকারীরাও মন্ত্রণালয়ে বিকাল নাগাদ (১৮ জুন) বৈঠক করছেন। তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে জরুরি সভায় বসেছেন, ঐক্যজোটের প্রধান নায়ক ফারুক, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর, সহ-সভাপতি চিত্রনায়ক রিয়াজ, সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান, চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, মহাসচিব বদিউল আলক খোকন, যুগ্ন মহাসচিব শাহীন সুমন, প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু।

বিকাল সাড়ে ৪টায় বৈঠক থেকে বের হয়ে মিশা সওদাগর বলেন, ‘তথ্যমন্ত্রী আমাদের বলেছেন, ছবি দুটি (বস-টু ও নবাব) অভিযোগে দোষী। ছবিগুলোর বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ লিখিত আকারে জমা দেওয়ার কথা বলেছেন তিনি। আমরা আগামীকাল এগুলো মন্ত্রণালয়ে দেব। এরপর তিনি সিদ্ধান্ত নেবেন।’

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ‘বস টু’ ও ‘নবাব’ সিনেমাটি যৌথ প্রযোজনার সঠিক নিয়ম-নীতি মানা হয়েছে কি না এটি খতিয়ে দেখার জন্য সেন্সর প্রিভিউ কমিটিতে একটি চিঠি দেয় চলচ্চিত্র ঐক্য জোট।

‘বস টু’ সিনেমায় বাংলাদেশের শিল্পী কম নেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করে তথ্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠায় প্রিভিউ কমিটি। কিন্তু সম্প্রতি প্রিভিউ কমিটি ‘বস টু’ সিনেমাটি সেন্সরে প্রদর্শনের অনুমতি দেয়।  আর এ নিয়ে উত্তপ্ত বিএফডিসি।

Advertisements