অর্থনীতি-ব্যবসা জাতীয়

দিনশেষে শেয়ারবাজারে সূচক ও লেনদেনে উত্থানে লেনদেন সম্পূর্ণ

দেশের দুই শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচক ও আর্থিক লেনদেনে উত্থান হয়েছে। একইসঙ্গে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে। সোমবার (১৯ জুন) এ উত্থান হয়েছে।

এ দিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৪৭৯ পয়েন্টে। যা আগের দিন কমেছিল ৭ পয়েন্ট।

সোমবার ডিএসইতে ৫৪০ কোটি ৮৯ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন হয়েছিল ৪৭৩ কোটি ৪০ লাখ টাকার। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ৬৭ কোটি ৪৯ লাখ টাকার বা ১৪ শতাংশ।

এদিকে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩২৮টি কোম্পানির মধ্যে ১৮৩টি বা ৫৫.৭৯ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ৯১টি বা ২৭.৭৪ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টি বা ১৬.৪৬ শতাংশ কোম্পানির।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে রিজেন্ট টেক্সটাইলের শেয়ার। এ দিন কোম্পানির ২০ কোটি ১৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা নূরানি ডাইং অ্যান্ড সোয়েটারের ১৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৪ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ওরিয়ন ফার্মাসিউটিক্যালস।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, আরগন ডেনিমস, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, বিডিকম অনলাইন, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন ও ইফাদ অটোস।

এ দিন অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৩২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০২৬৯ পয়েন্টে। বাজারটিতে ৫১ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। লেনদেন হওয়া ২৩৭টি ইস্যুর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৩০টির, কমেছে ৬৯টির এবং অপরিবর্তীত রয়েছে ৩৮টির।

আগের দিন সিএসইর সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৭ পয়েন্ট কমেছিল। আর বাজারটিতে ২৫ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছিল।