অপরাধ/দুর্নীতি

তালাক দেয়া স্ত্রীকে পুনরায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ! অতঃপর..

ফতুল্লার পিলকুনি এলাকায় তালাক দেয়া স্ত্রীকে পুনরায় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে আবদুর রহিমের (৩২) বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ফতুল্লা থানায় স্ত্রী বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। এই মামলায় লম্পট রহিমকে পুলিশ মঙ্গলবার ১০ অক্টোবর রাতে গ্রেপ্তার করেছে।

এ মামলার অভিযোগে জানা যায়, ফতুল্লার পিলকুনি এলাকার মো. দুলাল সরদারের মেয়ে শাহনাজ আক্তার (২৬)। তার সঙ্গে ৬ বছর আগে আবদুর রহিমের সাথে বিবাহ হয়। রহিম ঢাকা জেলার বাড্ডা থানাধীন পোস্ট অফিস সড়ক এলাকার আবদুর সোবাহানের ছেলে। সে ঠিক মত স্ত্রী সন্তানকে ভরণ পোষন করে না। এমনকি কারণে অকারেণ সে নানা সময় স্ত্রীকে নির্যাতন করতো।

২০১৪ সালের ৯আগষ্ট রহিমকে শাহনাজ তালাক প্রদান করে। এরপর আবার সে মেয়ের অজুহাতে শাহনাজের সাথে যোগাযোগ করে সু সম্পর্ক গড়ে ২০১৫ সালে তাকে আবার রহিম নিয়ে যায়। মিথ্যা কাবিন দেখিয়ে রহিম প্রতারনা করে শাহনাজকে সে নিয়মিত মেলামেশা করে আসছে। ১০ অক্টোবর সে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে আবার শাহনাজকে ধর্ষণ করে। একপর্যায় বিষয়টি পরিবারের মধ্যে জানাজানি হলে রহিমকে আটক ঘরে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।