জাতীয় রাজনীতি

তারেক জিয়ার সঙ্গে ড. কামালের ফোনালাপ !

সরকার হটানোর আন্দোলন পরিকল্পনায় তারেক জিয়ার সঙ্গে হাত মেলালেন ড. কামাল হোসেনের পরিবার। লন্ডনে তারেক জিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেছেন ড. কামালের জামাতা ডেভিড বার্গম্যান।

দুই দফা বৈঠকের পর বার্গম্যান তারেককে কথা বলিয়ে দিয়েছেন ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে। আগামী ৫ সেপ্টেম্বর ডেভিড বার্গম্যান দেশে ফিরবেন। ড. কামাল এবং তারেক জিয়ার লক্ষ্য এখন এক ও অভিন্ন। আদালতের রায়ের মাধ্যমে বর্তমান সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা।

ডেভিড বার্গম্যান ইহুদি বংশোদ্ভূত। পেশায় তিনি সাংবাদিক হলেও যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষে ‘বিশ্বব্যাপী জনমত’ সৃষ্টির জন্য ভাড়াটে লবিস্ট হিসেবে তিনি আলোচনায় আসেন। হিউম্যান রাইটস ওয়াচ সহ বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থায় তিনি যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষে ওকালতি করেন।

২০১৫ সালে যুদ্ধাপরাধের জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল তাঁকে আদালত অবমাননার দায়ে দণ্ডিত করা হয়। ডেভিড বার্গম্যান ড. কামাল হোসেনের মেয়ে ব্যারিস্টার সারা হোসেনের স্বামী।

গত জুলাই মাসে ব্যক্তিগত সফরে বার্গম্যান লন্ডনে যান। সেখানেই তারেক জিয়ার আমন্ত্রণে তিনি তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। লন্ডনের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, লন্ডনে তারেক-বার্গম্যান দুদফা বৈঠক হয়েছে।

বৈঠকে ডেভিড বাংলাদেশে কথিত মানবাধিকার লঙ্ঘনের বেশ কিছু তথ্য-উপাত্ত তারেক জিয়ার কাছে হস্তান্তর করেছেন। এসব তথ্য ও প্রামাণ্যচিত্রে গত ৮ বছরে হারিয়ে যাওয়া লোকজনের আত্মীয় স্বজনের সাক্ষাৎকার রয়েছে।

তবে, তারেক জিয়া এসব তথ্য উপাত্তের চেয়ে বর্তমান সরকারকে উৎখাতে ড. কামাল হোসেনের সহযোগিতা চেয়েছেন।

ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের পর বার্গম্যানের সঙ্গে তারেক জিয়ার দ্বিতীয় দফা বৈঠক হয়। এই বৈঠকে দুইজন রায় পর্যালোচনা করেন বলে জানা গেছে। এই রায়ের ভিত্তিতে, বর্তমান সরকারকে এবং সংসদকে অবৈধ ঘোষণা চেয়ে একটি রিট আবেদনের ব্যাপারে তারেক ড. কামাল হোসেনের সহযোগিতা চান।

বার্গম্যান ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে তারেকের কথা বলিয়ে দেন। ড. কামাল এবং তারেক দুজনই সরকার হটাতে একযোগে কাজ করার ব্যপারে একমত পোষণ করেছেন। কীভাবে আদালত দিয়ে ‘পাকিস্তানি কায়দায় ‘সরকারকে ‘ফেলে’ দেওয়া যায়, সে ব্যপারে ড. কামাল কাজ শুরু করেছেন বলেও জানা গেছে।

এই মামলার জন্য ‘যত টাকা লাগে‘ তা তারেক জোগাবেন বলেও জানা গেছে। এছাড়াও আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে আন্তজার্তিক গণমাধ্যমে প্রচারণার দায়িত্ব নিয়েছেন ডেভিড বার্গম্যান।

এ জন্য তিনি তারেকের কাছ থেকে কত টাকা পেয়েছেন তারেকের কাছে পেয়েছেন, তা জানা না গেলেও, অংক টা যে বেশ বড় তা নিশ্চিত।

কারণ লন্ডনে বিএনপির ধনাঢ্যরা ‘প্রচারণা বাবদ’ টাকা তারেকের কাছে পৌঁছেও দিয়েছে। এখন আদালত খুললেই দেখা যাবে, তারেক জিয়ার টাকায় ড. কামাল কতটা সন্তুষ্ট। সূত্র: বাংলা ইনসাইডার