ঢাকা শিক্ষা

ঢাবির ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে আটক ১২

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে মোট ১২ জনকে আটক করা হয়েছে। তার মধ্যে ২ জন নারী পরিক্ষার্থী রয়েছে। ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয়। তারা সবাই ডিভাইস ও মোবাইলের মাধ্যমে জালিয়াতি করতে গিয়ে ধরা পড়ে।

শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ৮৭টি কেন্দ্রে এই ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদ-ই ইলাহী আটকদের তাৎক্ষণিক ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। এদের সবাইকে শাহবাগ থানায় সোপর্দ করা হয়।

প্রক্টর অফিস সূত্রে জানা যায়, এই পরীক্ষার্থীরা কানের মধ্যে ছোটো ডিভাইসের মাধ্যমে বাইরের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে। তাদের অস্বাভাবিক আচরণ দেখে শিক্ষকরা তাদের ধরে ফেলে।

আটকরা হলো, বিজনেস ফ্যাকাল্টি কেন্দ্র থেকে ২ জন আল ইমরান ও নূরে আলম আরিফ, উদয়ন স্কুল কেন্দ্র থেকে শাহ পরাণ, শেখ বোরহানউদ্দিন কলেজ কেন্দ্র থেকে ২ জন আবুল বাসার এবং নাহিদ হাসান কাউসার, আহমেদ বাওয়ানী একাডেমী কেন্দ্র থেকে ২ জন তানভীর হোসাইন এবং এস এম জাকির হোসাইন মতিঝিল আইডিয়াল কলেজ কেন্দ্র থেকে ২ জন রাকিবুল ইসলাম, খন্দকার মিরাজুল ইসলাম, কাজী মোতাহার ভবন কেন্দ্র থেকে আবু হানিফ নোমান, মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় শৌমিকা প্রতিচি সত্তার কেন্দ্র, লালমাটিয়া কলেজ কেন্দ্র থেকে আরিফা বিল্লাহ তামান্না।