আন্তর্জাতিক

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক স্ত্রী রাষ্ট্রদূত হতে চান

wযুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তার বিচ্ছেদ ১৯৯২ সালে। তারপর থেকে তিনি একটি রিয়ালিটি শো করেন। এর মাধ্যমেই বেশ পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন তিনি। এবার নিজের নামের পাশে আরেকটি পরিচয় লাগাতে চাইছেন। সেটা হলো- রাষ্ট্রদূত।

তিনি ইভানা ট্রাম্প। জন্ম চেক প্রজাতন্ত্রে ১৯৪৯ সালে। সেখানেই বড় হয়ে উঠেছেন। এরপর মার্কিন ধনকুবের ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বিয়ে এবং বিচ্ছেদ।

বেশ আগে বিচ্ছেদ হয়ে গেলেও ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে এখন গর্ব করেন ইভানা। ৬৭ বছর বয়সী ইভানা সম্প্রতি নিউইয়র্ক পোস্টকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তার একটি ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন।

ইভানা বলেন, ট্রাম্পের এখন উচিৎ চেক প্রজাতন্ত্রে তাকে রাষ্ট্রদূত বানিয়ে দেওয়া। কারণ তিনি চেক ভাষায় কথা বলতে পারেন। দেশটাকেও ভালো করে জানেন।

ইভানা অবশ্য তার নিজের কাজ নিয়েও বেশ গর্ব করেন। বলেন, ”এ পর্যন্ত তিনটি বই লিখেছি। ৪০টি দেশে ২৫ ভাষায় তা অনুবাদ হয়েছে। মানুষ আমাকে ইভানা নামেই চেনে। নিজেকে চেনাতে কখনোই নামের পাশে ‘ট্রাম্প’ লিখতে হয়নি।”

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্প জয়ী হওয়ায় ভীষণ খুশি ইভানা। তাই আবেগে সাবেক স্বামীর অভ্যাস সম্পর্কেও একটু বলে দিয়েছেন গণমাধ্যমে। ইভানা বলেন, ‘ওর জন্য নির্বাচনী প্রচারণা চালানো বেশ চ্যালেঞ্জ ছিল। কারণ কোথাও যাওয়া ও একদম পছন্দ করে না। আমার ধারণা গত ১৮ মাসে যে ভ্রমণ ও করেছে, তা আগে কখনোই করেনি। তবে ভালো যে ওর নিজের প্লেন আছে।

ভিডিও:এমন ভাবে বিমান এক্সিডেন্ট মানুষ খুব কম ই দেখেছে !!ভয়ংকর একটি বিমান এক্সিডেন্ট দেখে নিন (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment