আন্তর্জাতিক

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ওবামার রুদ্ধদ্বার বৈঠক

eনবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে হোয়াইট হাউসে বৈঠক করেছেন। মঙ্গলবারের নির্বাচনের পর এটি ছিল তাদের মধ্যে প্রথম বৈঠক। শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়।

বৈঠক শেষে ওবামা সাংবাদিকদের বলেন, ‘ট্রাম্পের সঙ্গে ঐতিহাসিক বৈঠক ছিল অসাধারণ। ট্রাম্প খুব ভালো মানুষ। তিনি সফল হলেই আমেরিকা সফল হবে।’

ট্রাম্প বলেন, ওবামার সঙ্গে বৈঠক করতে পারাটা তার জন্য সম্মানের। প্রেসিডেন্ট পদে বসার পর তিনি ওবামার পরামর্শ চাইবেন। আর ওবামা তাকে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। এর আগে দু’নেতা রুদ্ধদ্বার বৈঠকে মিলিত হন।

হিলারি ক্লিনটনের প্রচারণায় এবার বড় ভূমিকা রেখেছিলেন ওবামা। এ সময় তিনি ট্রাম্পের সঙ্গে বাকযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন। ফলে কয়েকদিন আগেও ট্রাম্প ও ওবামার বৈঠক ছিল প্রায় অসম্ভব। তবে ট্রাম্পের জয়ের পরই ওবামা তাকে অভিনন্দন জানান এবং আমেরিকানদের ফল মেনে নেয়ার এবং তাকে সমর্থন করার আহ্বান জানান।

মঙ্গলবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অবিশ্বাস্যভাবে জয়ের পর ট্রাম্পের এটি ছিল প্রথম ওয়াশিংটন সফর। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় নিজের ব্যক্তিগত বিমানে ওয়াশিংটনের রিগ্যান ন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করেন ট্রাম্প। এ সময় নবনির্বাচিত ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও ট্রাম্পের স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প উপস্থিত ছিলেন। তবে কোনো প্রটোকল ছিল না। কোনো সাংবাদিককেও ট্রাম্প সঙ্গে নেননি। হোয়াইট হাউসে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন মিশেল ও মেলানিয়া।

ট্রাম্প দীর্ঘদিন ধরেই ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট ওবামার ঘোর সমালোচক। তিনি তার নাগরিকত্ব এবং ধর্ম নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। ২০১১ সালে ফক্স নিউজকে ট্রাম্প বলেছিলেন, ওবামা হয়তো মুসলিম।
পরে হোয়াইট হাউসে এক অনুষ্ঠানে ট্রাম্পের উপস্থিতিতে ওবামা এ নিয়ে কটাক্ষ করেন। অনেকে বলছেন, সেই ঘটনার প্রতিশোধ নিতেই ট্রাম্প হয়তো প্রেসিডেন্ট হতে চেয়েছিলেন।

বুধবার সকালে ওবামা তার উত্তরসূরিকে টেলিফোন করে অভিনন্দন জানান। পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ট্রাম্পের সঙ্গে তার ব্যাপক মতবিরোধ রয়েছে। কিন্তু তা যেন শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরে কোনো বাধা সৃষ্টি না করে সেজন্য তিনি হোয়াইট হাউস কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

ওবামা বলেন, ২০০৮ সালে তিনি যখন প্রেসিডেন্ট হন তখনও তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের সঙ্গে তার মতপার্থক্য ছিল। কিন্তু বুশ মসৃণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের নির্দেশ দিয়েছেন।

ওবামা বলেন, তিনিও তার কর্মকর্তাদের প্রেসিডেন্ট বুশের দৃষ্টান্ত অনুসরণের নির্দেশ দিয়েছেন।

৯ নভেম্বর আমেরিকানরা ভোটের মাধ্যমে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করেছেন। তিনি পেয়েছেন ২৭৯টি ও হিলারি পেয়েছেন ২২৮টি ইলেক্টোরাল কলেজের ভোট।

আগামী বছরের ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ভিডিও:পায়ের বেঁকে যাওয়া নখ ঠিক করার জন্য কি উপায় বের হয়েছে দেখুন অবাক করা(ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment