আন্তর্জাতিক

ডাক্তারকে ধাওয়া দিয়ে কুপিয়ে খুন করল রোগী

ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক ডাক্তারকে ধাওয়া দিয়ে খুন করেছে এক রোগী। ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার কানসাসে ডাক্তারের ক্লিনিকেই। পুলিশ জানায় নিহত ডাক্তারের নাম অচ্যুত রেড্ডি (৫৭)। তিনি একজন মনোরোগ ও ইয়োগা বিশেষজ্ঞ বলে জানা গেছে।

এই কানসাসেই এ বছরের শুরুর দিকে খুন হয়েছিলেন শ্রীনিবাস কুচিভোটলা নামে অপর এক ভারতীয় ডাক্তার। ঘটনাচক্রে নিহত এই ডাক্তার ও কুচিভোটলা দু’জনেই তেলাঙ্গানার বাসিন্দা!

আর যে রোগীর হাতে এই ডাক্তার খুন হয়েছেন, তিনিও একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। অভিযুক্তের নাম উমর রশিদ দত্ত।

জানা গেছে, ডাক্তারের সঙ্গে কথা কাটাকাটির পরই আচমকা ছুরি নিয়ে তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়েন উমর। বেশ কয়েকবার ছুরি দিয়ে রেড্ডিকে কোপান তিনি। তারপর রেড্ডিকে ক্লিনিকের অদূরেই একটি ফাঁকা গলিতে ফেলে রেখে পালিয়ে যান।

পরে পুলিশ গিয়ে রেড্ডিকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে।

পুলিশ জানায়, উমরকে কান্ট্রি ক্লাবের একটি পার্কিংয়ে গাড়ির ভিতর রক্তমাখা পোশাকে দেখে পুলিশের সন্দেহ হয়। সঙ্গে সঙ্গে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। খুনের ঘটনাটি স্পষ্ট হলে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তবে কী কারণে রেড্ডিকে খুন করলেন উমর সে বিষয়টি এখনো স্পষ্ট নয় বলে জানায় পুলিশ।

তেলাঙ্গানার বাসিন্দা রেড্ডি ১৯৮৬-তে ওসমানিয়া মেডিকেল কলেজ থেকে স্নাতক হয়ে পাড়ি জমিয়েছিলেন কানসাসে। সেখানে উইচিটায় ইউনিভার্সিটি অব কানসাস মেডিকেল কলেজ থেকে পাস করে গত দু’দশক ধরে কানসাসে হোলি সাইকিয়াট্রিক সার্ভিসেস নামে একটি ক্লিনিক চালাচ্ছিলেন। চিকিত্সার পাশাপাশি তিনি ইয়োগারও প্রশিক্ষণ দিতেন। নিহতের স্ত্রী বীণা রেড্ডিও একজন ডাক্তার।