খেলা-ধুলা

টেস্ট সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ সফরে আসবে তো?

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) সঙ্গে সেদেশের ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তি নিয়ে বিরোধ চলছে। সমাধানে না আসায় অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (এসিও) তাদের ‘এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বাতিল করেছে। প্রশ্ন উঠেছে, টেস্ট সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ সফরে আসবে তো?

বিসিবি ধরেই নিয়েছে, অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটে অচলাবস্থা বেশিদিন থাকবে না। বাংলাদেশ সফরে নির্ধারিত সময়ে আসবে অসিরা।

বৃহস্পতিবার বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার বিষয়টা অনেক দূরের ব্যাপার। আগস্টের মাঝামাঝি সময়ে তাদের আসার কথা। এখনই এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করার সময় নয়।

অস্ট্রেলিয়ার পর্যবেক্ষক দল আসবে। তারা এসে কথা বলবে। আমরা আশা করছি তারা নির্ধারিত সময়েই আসবে। আমরা বিকল্প কিছু ভাবছি না। ভাবার কোনো অবকাশ নেই।’এদিকে আইসিসির সর্বশেষ সভায় ওয়ানডে ও টেস্ট লীগ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আইসিসিতে কিছু প্রস্তাব এসেছে।

আইসিসির পরিকল্পনায় থাকা ওয়ানডে ও টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ কোন অবস্থায় জানতে চাইলে নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের একটা অবকাঠামো নিয়ে আইসিসিতে আলোচনা হচ্ছে। বিভিন্ন প্রস্তাব আসছে। আলোচনা হচ্ছে। প্রত্যেকটা দলই চায় তাদের চেয়ে শক্তিশালী দলের সঙ্গে খেলতে। এ বিষয়টি নিশ্চিত করতে আইসিসি কাজ করছে।’ তিনি বলেন, ‘প্রতিটি বোর্ড আইসিসির সঙ্গে মিলে কাজ করছে। এরই মধ্যে আমরা যে নিশ্চয়তা পেয়েছি, সেটা হল প্রতিটি দলের ম্যাচসংখ্যা সমান হবে।’

নতুন আলোচনায় বিসিবি লাভবান হবে কিনা জানতে চাইলে বিসিবির প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘লাভবান হচ্ছে কিনা এখনই সেটা বলা যাচ্ছে না। আমাদের আশ্বাস দেয়া হয়েছে এখন থেকে নিয়মিত খেলা হবে। কিন্তু আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি সবার সঙ্গে যেন খেলা থাকে, তা নিশ্চিত করতে।’
কিছুদিন আগে আফগানিস্তান প্রিমিয়ার লীগের নিলামে বাংলাদেশের কয়েকজন ক্রিকেটারের নাম শোনা গিয়েছিল। নিজামউদ্দিন জানালেন, আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড থেকে এমন কোনো প্রস্তাব এখনও আসেনি। অস্ট্রেলিয়া সিরিজের আগে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মাঠ প্রস্তুত হয়ে যাবে বলে বিসিবির প্রধান নির্বাহী জানান। তিনি বলেন, ‘আমাদের কিছু পরিকল্পনা আছে। টপ সার্ফেসের কাজ হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা কাজ তদারক করছেন। কিউরেটররাও দেখছেন। আমরা আশা করছি, নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই কাজ পুরোপুরি শেষ হবে।’