slider জাতীয়

জাবিতে আমরণ অনশনে ৪ শিক্ষার্থী

শিক্ষক লাঞ্ছনা ও উপাচার্যের বাসভবন ভাংচুরের দায়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৪ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কর্তৃক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আমরণ অনশন করছে বিশ্ববিদ্যালয়ের চার শিক্ষার্থী।

অনশনরতরা হলেন, ইংরেজি বিভাগের ৪২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী তাহমিনা জাহান, একই বিভাগের সরদার জাহিদুল ইসলাম, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ৪০তম ব্যাচের শিক্ষার্থী পূজা বিশ্বাস এবং আইন ও বিচার বিভাগের ৪৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী খান মুনতাসির আরমান। এদের মধ্যে, জাহিদুল ইসলাম ও পূজা বিশ্বাস শনিবার দুপুর থেকে অনশন শুরু করেন।

পরে শনিবার রাত দশটায় তাহমিনা জাহান তাদের সাথে যোগ দেন। পরবর্তীতে মুনতাসির আরমান রবিবার সকাল ১০টায় অনশন কর্মসূচিতে যোগ দেন। অনশনরতদের মধ্যে জাহিদুল ও পূজার নামে মামলা থাকলেও অন্য দুজনের বিরুদ্ধে মামলা নেই।

এদিকে, মামলা প্রত্যাহারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে রবিবার দুপুরে জরুরি সিন্ডিকেট সভা ডেকেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এ বিষয়ে অনশনরতরা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দায়ের করা এ মামলায় সামাজিকভাবে হেয়-প্রতিপন্ন হচ্ছেন; তাদের জীবন অসহনীয় হয়ে উঠেছে। সামনে পরীক্ষা অথচ কোন প্রস্তুতি নিতে পারছে না তারা। প্রশাসন যে পর্যন্ত মামলা প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি না দিবে সে পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাবেন বলে তারা জানান।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর তপন কুমার সাহা বলেন, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে দুপুরে সিন্ডিকেট সভা ডাকা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৬ মে ভোরে ক্যাম্পাস-সংলগ্ন সিঅ্যান্ডবি এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনায় নাজমুল হাসান ও মেহেদি হাসান নামে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। এই দুই শিক্ষার্থীর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ, চালকের শাস্তি ও রাস্তায় দাবিতে পরদিন ২৭ মে বেলা পৌনে ১১টা থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। অবরোধ তুলে দিতে বিকেল ৫টার দিকে পুলিশ শিক্ষার্থীদের ওপর রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে। এতে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা উপাচার্যে বাসভবন ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই ৫৪ জনের বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় মামলা করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।