খেলা-ধুলা

জাতীয় দলে ফিরলেন জিম্বাবুয়ের সাবেক অধিনায়ক

রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে উত্থানলগ্নেই স্থবির হয়ে পড়েছিল টেস্ট খেলুড়ে দল জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট শক্তি। কোনোভাবেই সঠিক পথে ফেরানো যাচ্ছিল না ক্রিকেটকে। ক্ষোভ, দুঃখ আর অভিমান নিয়ে ক্রিকেট ছেড়ে ইংল্যান্ডে পাড়ি জমিয়েছিলেন সাবেক অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেইলর। তবে সাম্প্রতিক সময়ে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটে বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে। পারফর্মেন্সও ভালো হচ্ছে। তাই অবসর ভেঙে টেইলর আবারও ফিরেছেন দেশের ক্রিকেটে।

২০১৫ বিশ্বকাপের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেন টেইলর। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের অনিয়ম ও দুর্নীতিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন। বেতনও পেতেন না ঠিকমতো। তাই বেঁচে থাকার তাগিতে জীবিকার জন্য পাড়ি জমান ইংল্যান্ডে। সেখানকার কাউন্টি ক্রিকেটে নটিংহ্যামশায়ারের হয়ে খেলতেন টেইলর।
এবার ক্লাব থেকে ছাড়পত্র পেয়ে আগামী মাসেই দেশের হয়ে মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন ৩১ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

টেইলরকে আবারও দলে ফেরানোতে মূল ভূমিকা রেখেছেন সাবেক অধিনায়ক এবং বর্তমানে নির্বাচক কমিটির প্রধান টটেন্ডো তাইবু। আগামী মাসেই নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে দলে ফেরা প্রায় নিশ্চিত টেইলরের। তাইবু বলেছেন, ‘ক্রিকেট জানা প্রত্যেকেই জানে যে টেইলর কোন মানের ক্রিকেটার। ওকে খুব বেশি দেখার দরকার নেই আমাদের। কাউন্টিতে আমরা ওর পারফরম্যন্সে এমনিতেই আমরা নজর রাখছিলাম। ওকে একাদশে ফিরে পেতে আমরা মুখিয়ে আছি। ‘

উল্লেখ্য, গত কয়েক মাসে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। বাংলাদেশের সাবেক জনপ্রিয় পেস বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক এবার প্রধান কোচ হয়েছেন নিজ দেশের ক্রিকেট দলের। ক্রিকেট প্রশাসনে এসেছে পরিবর্তন। ক্রিকেটারদর বেতন-ভাতা বিষয়ক সমস্যাও কেটে গেছে। দলের পারফর্মেন্সও ঊর্ধ্বমুখী। শ্রীলঙ্কার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে তারা। সব মিলিয়ে নতুন করে আশার আলো দেখা দিচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটের পরম বন্ধু বলে পরিচিত জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটাঙ্গনে।