অপরাধ/দুর্নীতি জাতীয়

চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী বই আনতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার

ফেনীর দাগনভূঁঞা ছুটির পর বিদ্যালয়ের বই আনতে গিয়ে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। শিশুটিকে গুরুতর আহত অবস্থায় ফেনী জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

গতকাল রোববার বিকেলে উপজেলার জায়লষ্কর ইউনিয়নের খুশিপুর গ্রামে এঘটনা ঘটলে ছাত্রীটিকে রাতে হাসপাতালে ভর্তি করালে বিষয়টি জানাজানি হয়। এঘটনায় ধর্ষিত শিশুর বাবা বাদী হয়ে দাগনভূঞা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

শিশুটির পরিবার জানায়, খুশিপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী ছুটির পর বাড়ি ফিরে দেখতে পায় তার একটি বই শ্রেণিকক্ষে ফেলে এসেছে। বইটি আনতে তার এক সহপাঠিকে নিয়ে আবারও বিদ্যালয়ে যায়। বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষে ঢুকতেই তিন বখাটে মেয়েদের উপর হামলে পড়ে। এক জন দৌড়ে আত্মরক্ষা করতে পারলেও এই ছাত্রীকে শ্রেণিকক্ষে আটকে রেখে দরজা বন্ধ করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এক বখাটে। পরে বখাটেরা পালিয়ে যায়।

বিষয়টি বাড়িতে জানালে ধর্ষণের শিকার মেয়েটিকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তার স্বজনরা জেলা সদর হাসপাতালে ভার্তি করে। এ ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি তবে পুলিশ বলছে চেষ্টা চলছে।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. মোজাম্মেল হোসেন স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রাথমিক কিছু আলামত পাওয়া গেছে। ডাক্তারী পরীক্ষা শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।

দাগনভূঞা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ জানান, এঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। অভিযুক্ত বখাটেদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Advertisements