বরিশাল বিভাগীয় সংবাদ

গোপনে তালাকের পর মিলন,অতঃপর

স্ত্রীর ধর্ষণ মামলায় জেলহাজতে স্বামী। সোমবার রাতে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের পশ্চিম সুবিদখালী গ্রামের মাজহারুল ইসলাম মাসুদকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মনির হোসেন জানান, মির্জাগঞ্জ উপজেলার কাঁকরাবুনিয়া গ্রামের মাজহারুল ইসলাম মাসুদ একই উপজেলার পশ্চিম সুবিদখালী গ্রামের এক নারীকে চার বছর আগে বিয়ে করেন। তাদের দুই বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। গত ১৭ জুলাই মাসুদ বরগুনা পৌরসভার মাধ্যমে একটি তালাকনামা পাঠায় স্ত্রীকে। তালাকনামার কপি স্ত্রীর হাতে পৌঁছার আগে ৪ আগস্ট উপজেলা সদরে ভাড়াবাসায় বসবাস করা বাড়িতে এসে মাসুদ তালাকের বিষয়টি গোপন রেখে তার সঙ্গে রাতযাপন করে। ৫ আগস্ট পিয়ন মারফত তালাকের নোটিশ সাবেক স্ত্রীর হাতে এসে পড়লে হতবিহ্বল হয়ে পড়েন তিনি।

তিনি আরো জানান, সোমবার ৭ আগস্ট রাতে পুনরায় মাসুদ ঘরে ফিরলে বিষয়টি নিয়ে কথাকাটাকাটি হয় তার সঙ্গে। একপর্যায়ে মাসুদ স্ত্রীকে মারধর করে। ওই রাতেই সাবেক স্ত্রী মির্জাগঞ্জ থানায় মাসুদের বিরুদ্ধে ৪ আগস্ট তালাকপরবর্তী রাতযাপন করায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ মাসুদকে ওই রাতেই গ্রেপ্তার করেছে।