slider আন্তর্জাতিক

কে যাচ্ছেন হোয়াইট হাউসে

1aআজ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। মার্কিনিরা আজ নির্ধারণ করবেন ওবামার উত্তরসূরি। নির্ধারিত হবে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশের নেতৃত্ব দেবেন কে? কার জন্য অপেক্ষা করছে হোয়াইট হাউস? হিলারি কিনটন নাকি ডোনাল্ড ট্রাম্প?

ডেমোক্র্যাটরাই থাকবে নাকি রিপাবলিকানরা দখলে নেবে? প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট নাকি রাজনীতিতে আনকোরা এক ধনকুবের শেষ হাসি হাসবেন?- সব প্রশ্নের উত্তর মিলবে ব্যালটে। দেশটির রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় (বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টা) ভোটগ্রহণ শুরু হবে। ৫০ অঙ্গরাজ্যে চলবে এ ভোট।

নিউইয়র্ক টাইমস, ওয়াশিংটন পোস্ট, রয়টার্স ও বিবিসি। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পাশাপাশি একই সঙ্গে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভের ৪৩৫ সদস্যও নির্বাচিত হবেন আজ।

এ ছাড়া ভোটাররা ১০০ সিনেটরের মধ্যে ৩৪ জনকে নির্বাচিত করতে ভোট দেবেন। প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হতে হলে অন্তত ২৭০টি ইলেক্টোরাল ভোট পেতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রে মোট ইলেক্টোরাল ভোটের সংখ্যা ৫৩৮টি। অন্যতম প্রভাবশালী মার্কিন গণমাধ্যম লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস গতকাল এক প্রতিবেদনে জানায়, তাদের হিসাব হিলারি ৩৫২টি ইলেক্টোরাল ভোট পাবেন।

ট্রাম্পের দৌড় সর্বোচ্চ ১৮৬ পর্যন্ত। ১৯ ডিসেম্বর ইলেক্টোরাল ভোটার বা ইলেক্টোরদের ভোটে চূড়ান্ত হবে, কে হবেন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম (৫৮তম নির্বাচন) প্রেসিডেন্ট। যুক্তরাষ্ট্রে নিবন্ধিত ভোটার ২০ কোটি। এর মধ্যে তিন কোটি ৭০ লাখ ভোটার আগাম ভোট দিয়েছেন। বাকি ১৬ কোটির মতো ভোটার আজ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন।

কেন্দ্রফেরত ভোটারদের ওপর পরিচালিত জরিপ বলছে, আগাম ভোটে এগিয়ে রয়েছেন হিলারিই। বিভিন্ন জনমত জরিপে হিলারির জয়ের সম্ভাবনাই বেশি দেখা যাচ্ছে। তার ওপর গতকাল সোমবার এফবিআই নিষ্কৃতি দিয়েছে হিলারিকে। বলেছে, সাবেক এ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ইমেইলে অপরাধমূলক কোনো কর্মকা-ের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাই তাকে ফের অব্যাহতি দেওয়া হচ্ছে। এতে চাঙ্গা হয়ে ওঠে হিলারি শিবির। এফবিআই থেকে নিষ্কৃতি পাওয়া শেষ মুহূর্তে ভাসমান ও সিদ্ধান্তহীন ভোটারদের টানতে সুবিধে হয়েছে হিলারির, স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো এমন মন্তব্য করেছে। ঠিক এ কারণে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাটির ওপর খুব চটেছেন ট্রাম্প।

প্রিন্সটন ইলেকশন কনসোর্টিয়ামের সর্বশেষ গতকালের জরিপে বলা হয়, সাবেক ফার্স্টলেডি হিলারির জয়ের সম্ভাবনা ৯৯ শতাংশ। ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি নির্বাচিত হলে এটি যুক্তরাষ্ট্রের জন্য প্রথম ঘটনা হবে। ২০০ বছরের পুরনো গণতন্ত্রের এ দেশটিতে এখন পর্র্যন্ত কোনো নারী প্রেসিডেন্ট হননি। ধারণা করা হচ্ছে, অভিবাসী, নারী, কৃষ্ণাঙ্গ ও তরুণদের ভোটে এগিয়ে থাকবেন হিলারি। ট্রাম্পকে এগিয়ে দিতে পারেন শ্বেতাঙ্গ ও বয়স্ক ভোটাররা। তবে শেষ মুহূর্তে যৌন কেলেঙ্কারির খবর ফাঁস হওয়ায় বিপদে রয়েছেন ট্রাম্প। কর ফাঁকিও তার বড় একটি কাঁটার কারণ।

হিলারির জন্য মূল ফাঁড়া ছিল ইমেইল ইস্যু। নির্বাচনের আগের দিন এফবিআই তাকে নিষ্কৃতি দেওয়ায় খুশি হিলারি শিবির। এফবিআইয়ের পরিচালক জেমস কমিটিকে চিঠিতে জানিয়েছেন, হিলারির ইমেইল বিষয়ে নতুন তদন্তে সংস্থার আগের অবস্থান পরিবর্তন করার মতো কিছু পাওয়া যায়নি। ইমেইলে অপরাধমূলক কিছু মেলেনি।

এফবিআইয়ের সিদ্ধান্ত শুনে বেজায় খেপেছেন ট্রাম্প। তার ভাষ্য- হিলারি দোষী। তিনি নিজেও তা জানেন। জানে এফবিআই, জানে জনগণ। এখন এ বিষয়ে বিচারের ভার জনগণের ওপর ছেড়ে দিয়েছেন ট্রাম্প। ব্যালটের মাধ্যমে হিলারির বিচার করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। দেখা যাক, ব্যালটে কাকে রায় দেয় যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ। আগামী বছর ২০ জানুয়ারি কার অভিষেক ঘটে হোয়াইট হাউসে হিলারি নাকি ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ভিডিওঃ ক্রিকেটে অপ্রত্যাশিত কিছু ক্যাচ দেখুন ভিডিওতে



আজকের জনপ্রিয় খবরঃ

গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ:

  1. বুখারী শরীফ Android App: Download করে প্রতিদিন ২টি হাদিস পড়ুন।
  2. পুলিশ ও RAB এর ফোন নম্বর অ্যাপটি ডাউনলোড করে আপনার ফোনে সংগ্রহ করে রাখুন।
  3. প্রতিদিন আজকের দিনের ইতিহাস পড়ুন Android App থেকে। Download করুন

Add Comment

Click here to post a comment