Default

কুড়িয়ে পাওয়া নবজাতক সাদিয়া মায়ের কোল পেয়েছে

eযশোরের শার্শা উপজেলার বাঁগআচড়া বাজারের কলেজ রোডে রাস্তার পাশে কুড়িয়ে পাওয়া নবজাতক শিশুটি ফিরেছে মায়ের কোলে। তবে প্রকৃত মায়ের কোল নয়, স্থানীয় ব্যবসায়ী এক দম্পতির কাছে সন্তানস্নেহেই রয়েছে সেই শিশুটি।

এদিকে নতুন বাবা-মা আহসান হাবিব ও স্ত্রী মৌসুমি আক্তার কন্যা শিশুটির নাম রেখেছেন সাদিয়া।

১৮ দিন আগে সাদিয়াকে কুড়িয়ে পাওয়া যায়। এখনো অবশ্য শিশুটির অভিভাবকদের খোঁজ মিলেনি। কেউ আসেনি তাদের সন্তানকে নিতে।

ইতিমধ্যে শিশুটির প্রকৃত বাবা-মায়ের খোঁজ নেয়া হচ্ছে বলে জানান, স্থানীয় বাগআঁচড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইলিয়াছ কবির বকুল।

তিনি বলেন, গত ২১ অক্টোবর বাগআঁচড়া বাজারের কলেজ রোডের ব্যবসায়ী আব্দুল ওদুদের চারতলা বাড়ির সিঁড়ির পাশে সদ্যপ্রসুত এই ফুটফুটে শিশুটিকে কাঁদতে দেখে আমাকে একজন লোক খবর দেয়। কুড়িয়ে পাওয়া শিশুটিকে তখন বাগআঁচড়ার একটি প্রাইভেট হাসপাতাল ‘জোহরা মেডিকেল সেন্টারে’ চিকিৎসা দেয়ার পর আহসান হাবিবের তত্বাবধানে রাখা হয়েছে। স্থানীয়ভাবে নবজাতকের বাবা-মায়ের খোঁজ করা হচ্ছে। খোঁজ পাওয়া গেলে শিশুটিকে তাদের হাতে তুলে দেয়া হবে।

বাগআঁচড়ার জোহরা মেডিকেল সেন্টারের গাইনি চিকিৎসক ডা. নাজমুন নাহার রানী বলেন, প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর থেকে এখন নবজাতকটি সম্পূর্ন সুস্থ আছে।

এদিকে শিশুটির নতুন মা মৌসুমি আক্তার জানান, আমার স্বামী রাস্তায় পাওয়া শিশুটিকে আমার কোলে তুলে দেন। আমার একটি কন্যা সন্তান থাকার পরও ফুটফুটে এই শিশুটিকে কোলে পেয়েই নাম রেখেছি সাদিয়া। তাকে শিশুর উপযোগী গুঁড়ো দুধ খাওয়ানো হচ্ছে বলে জানান মৌসুমি।

আহসান হাবিব জানান, প্রায় প্রতিদিনই বহু মানুষ এক নজর দেখে যাচ্ছেন শিশুটিকে। অনেকে নিতেও চাচ্ছেন কিন্তু আমরা একে কারো কাছে দিতে চাই না। আমাদের পাঁচ বছরের একটি মেয়ে আছে নাম সামিয়া আর এর নাম রেখেছি সাদিয়া। সামিয়ার মতো সাদিয়া দু’বোন মিলে আমাদের সংসারকে আলোকিত করুক এটাই আমাদের কামনা।

ভিডিও:মৃত্যুকে আহ্বান করেও যেভাবে বেঁচে যান এই বৃদ্ধ!! অবাক করা(ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment