বিনোদন

কারিনা ছেলে তৈমুরের মঙ্গলের জন্য ধর্মকে আলিঙ্গন করলেন

ভালোবাসার কাছে সব হেরে যায়। বহুদিন লালন করা বিশ্বাসও দূরে রাখেন কেউ কেউ। সেটা যদি হয় মা-সন্তানের মধ্যে তা হলেতো কথাই নেই। যেভাবেই হোক সন্তানের মঙ্গলটাই যেন পৃথিবীর সবচেয়ে ধ্রুব সত্য মায়ের কাছে। সেটারই নতুন করে প্রমাণ দিলেন বলিউড অভিনেত্রী কারিনা কাপুর। ছোট বেলা থেকেই ধর্মের প্রতি তিনি উদাসীন, কিন্ত ছেলের মঙ্গলের জন্য সেই ধর্মকেই আলিঙ্গন করলেন তিনি।
সাইফ আলি খান ও কারিনা কাপুর খান দম্পতির সন্তান তৈমুর। তার দেখবাল নিয়ে দুজনেই বেশ সচেতন। খুদে নবাবের ওপর যেন কোনোকিছুর বদনজর না লাগে, সেজন্য চেষ্টার ত্রুটি রাখছেন না সাইফিনা।

পতৌদির বংশধর তৈমুরের মঙ্গল কামনা করে কোনো অশুভদৃষ্টি যেন তার ক্ষতি করতে না পারে সেজন্য কারিনা ও তার পুরো পরিবার প্রচুর টাকা দিয়ে পূজার আয়োজন করেছেন। এ ক্ষেত্রে তাদের গুনতে হয়েছে ৫১ হাজার রুপি। পারিবারিক ঐতিহ্য মেনে এখানে নিমন্ত্রণ জানানো হয় বৃহন্নলাদের। তারা তৈমুরকে আশীর্বাদ করে দিয়ে গেছেন। ভারতীয়দের বিশ্বাস, হিজড়া সম্প্রদায় কোনো শিশুকে আশীর্বাদ করলে অশুভ কিছুই তার ধারেকাছে ঘেঁষে না। এটাকে কুসংস্কার মনে করেন অধিকাংশ মানুষ।
এটুকু বয়সেই তৈমুরের জনপ্রিয়তার কথা মাথায় রেখে ‘বদনজর’ ঠেকাতে পূজা দেওয়ার বিকল্প দেখেননি কারিনা! তৈমুর গত বছরের ২০ ডিসেম্বর সাইফ-কারিনা ঘর আলো করে জন্ম নেয়। এরপর থেকেই বলিউড ভক্তদের চোখের মণি হয়েছে আছে। এদিকে, কারিনা আগামী মাসে ক্যামেরার সামনে ফিরবেন। তার হাতে আছে ‘ভিরে ডি ওয়েডিং’ নামের একটি ছবি। মা হওয়ার পর এর মাধ্যমেই রুপালি পর্দায় প্রত্যাবর্তন করবেন তিনি।
অন্যদিকে, তৈমুরের বাবা সাইফ এখন ব্যস্ত ‘শেফ’ নামের একটি ছবির কাজে। এটি হলো ২০১৪ সালে হলিউডে মুক্তি পাওয়া একটি ছবির অফিসিয়াল রিমেক। ‘শেফ’ প্রেক্ষাগৃহে আসবে আগামী ৬ অক্টোবর।