Advertisements
আন্তর্জাতিক

কাতারের বিরুদ্ধে আরো বেশি শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিচ্ছে সৌদি জোট

সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন চার আরব দেশ কাতারের বিরুদ্ধে আরো বেশি ‘শাস্তিমূলক ব্যবস্থা’ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।  বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এক যৌথ বিবৃতিতে এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

চার দেশের ১৩ দফা দাবি মেনে নিতে অস্বীকার করার পর এ ঘোষণা দিল সৌদি আরব, মিশর, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন।

বিবৃতিতে চার দেশ বলেছে, আঞ্চলিক নিরাপত্তাকে অস্থিতিশীল রাখার যে নীতি কাতারের ছিল দেশটির বর্তমান অবস্থান তা অব্যাহত রাখার ইঙ্গিত দিচ্ছে। এর বিরুদ্ধে সব ধরণের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

সন্ত্রাসবাদে মদদের অভিযোগ তুলে গত মাসের প্রথম দিকে কাতারের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করে অবরোধ আরোপ করে সৌদি আরব, মিশর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। ২২ জুন অবরোধ তুলে নিতে কাতারকে ১৩ দফা দাবি মেনে নিতে চূড়ান্ত সময়সীমা বেধে দেওয়া হয়। এসব শর্তের মধ্যে ছিল, আল-জাজিরা নেটওয়ার্ক বন্ধ করা, ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক ছেদ এবং গাজার ইসরায়েল বিরোধী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসসহ আরো কিছু সংগঠনের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করা।

তবে কাতার শুরু থেকেই এসব শর্ত প্রত্যাখ্যান করে আসছিল। শেষ পর্যন্ত  দোহা তার সিদ্ধান্তে অটল থাকে।

বৃহস্পতিবার চার দেশের বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে, কাতার সরকার তাদের এ পদক্ষেপের মাধ্যমে কূটনৈতিক সমাধানের পথে অচলাবস্থার সৃষ্টি করেছে। শর্ত মানার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের মাধ্যমে দেশটি আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বিনষ্ট অব্যাহত রাখার ইচ্ছার কথাই প্রকাশ করেছে।

এছাড়া এতে বলা হয়েছে, চার দেশের যে কোনো পদক্ষেপ হবে কাতার সরকারের বিরুদ্ধে, এর জনগণের বিরুদ্ধে নয়। তবে পদক্ষেপগুলো কী ধরণের হবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

Advertisements