Advertisements
বিনোদন

এবার প্রেক্ষাগৃহে নিষিদ্ধ হলেন জায়েদ খান

এবার প্রেক্ষাগৃহে নিষিদ্ধ হলেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতি অভিনেতা ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের কোনো ছবি দেশের হলে চালানো হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে আয়োজিত বার্ষিক সাধারণ সভায় এ ঘোষণা দেয়। একই সাথে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন ও মুশফিকুর রহমান গোলজারকে নিষিদ্ধের তালিকায় রেখেছে সংগঠনটি। প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ হামলার ‘বিচার’ না হওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এর আগে গত ১১ জুলাই চিত্রনায়ক রিয়াজ, অভিনেতা মিশা সওদাগর ও প্রযোজক খসরুর কোনো ছবি চালাবে না বলে ঘোষণা দেয় প্রদর্শক সমিতির সদস্য হল মালিকরা। এদিন নওশাদ বলেন, দেশের সিনেমা হলে রিয়াজ, খলনায়ক মিশা সওদাগর ও প্রযোজক খসরুর ছবি প্রদর্শন করব না।

তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আগামী ২৬ জুলাই বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) এর মাধ্যমে নেওয়া হবে। তখন সারা দেশের হল মালিকদের সঙ্গে কথা বলে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া জানানো হবে।

আজ মঙ্গলবার চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি আয়োজিত বার্ষিক সাধারণ সভায় জানানো হয়, হল মালিক সমিতির সভাপতি ইফতেখার আহমেদ নওশাদের ওপর হামলার বিচার না হওয়ায় চিত্রনায়ক জায়েদ খান, পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন ও মুশফিকুর রহমান গোলজারের কোনো ছবি বাংলাদেশের সিনেমা হলে প্রদর্শিত হবে না।

ইফতেখার আহমেদ নওশাদ বলেন, যদি এই হামলার কোনো বিচার না হয় তাহলে সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে সারাদেশের সিনেমা হল বন্ধ করে দেওয়া হবে।
কোনো সিনেমা হলে কোনো প্রকার চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে না বলে জানান তিনি।

বার্ষিক সাধারণ সভায় উপস্থিত ছিলেন ইফতেখার আহমেদ নওশাদ, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আব্দুল আজিজ ও নাদের চৌধুরী।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের শুরুর দিকে বিদেশি ছবি আমদানি করার পক্ষে ছিল প্রদর্শক সমিতি। তার বিরুদ্ধে আন্দোলন করায় চিত্রনায়ক শাকিব খান, চিত্র পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান, মুশফিকুর রহমান গুলজারের ছবি না চালানোর ঘোষণা দিয়েছিল সিনেমা হল মালিক এবং বুকিং এজেন্ট সমিতি।

Advertisements