Advertisements
অর্থনীতি-ব্যবসা

এবার ধনী ক্রেতারা ছুটছেন কলকাতায়

পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে প্রিয়জনের জন্য কেনাকাটা করছেন বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। তবে ভিসাপ্রক্রিয়া সহজ হওয়ায় ঈদের বাজার করতে কলকাতামুখী হচ্ছেন ক্রেতারা। ঢাকা থেকে বাস ও ট্রেন যোগাযোগ চালু এবং সব পণ্যের মূল্য তুলনামূলক কম হওয়ায় ভারতে ক্রেতাদের আগ্রহ আরো বেড়েছে। দেশের বিত্তবানরা ঈদের কেনাকাটা করতে ভারতে চলে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন দেশী ব্যবসায়ীরা।
বেনাপোল ইমিগ্রেশন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওমর শরীফ জানান, গত ১২ থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত এক সপ্তাহে বেনাপোল বন্দর হয়ে কলকাতায় গেছে ৩১ হাজার ৩৫৪ জন যাত্রী। একই সময়ে কলকাতা থেকে বাংলাদেশে ফিরেছেন প্রায় ২৫ হাজার যাত্রাী। স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ঈদকে সামনে রেখে বেনাপোল দিয়ে ভারতে পাসপোর্টধারীদের যাতায়াত বেড়েছে।

এদের বেশির ভাগ ঈদের শপিং করে ফিরছেন।
সম্প্রতি চিকিৎসা নিয়ে ভারত থেকে ফিরেছেন সাংবাদিক শফিউদ্দীন বিটু। ফেরার সময় প্রিয়জনদের জন্য ঈদের পোশাক ক্রয় করতে যান কলকাতার মার্কেটে। সেখানকার নিউ মার্কেট, বড় বাজার, চাদনীচক মার্কেটে গিয়ে দেখেন বাংলাদেশী ক্রেতাদের ভিড়। মার্কেটগুলোর অধিকাংশ ক্রেতাই বাংলাদেশী। ক্রেতাদের চাপে হোটেলগুলোতে কোনো রুম পাওয়া যাচ্ছে না। পণ্য ব্যাগেজ রুল অতিক্রম করায় কাস্টমস ও পুলিশকে বকশিশ দিয়ে ম্যানেজ করছেন যাত্রীরা।
ভারতীয় ভিসা পেতে ই-টোকেন পদ্ধতি উঠিয়ে দেয়া হয় ১ জানুয়ারি ২০১৬ থেকে। ভারতে ভ্রমণ ভিসার আবেদন করতে ই-টোকেন পদ্ধতি উঠিয়ে নেয়ার পর ভারত যাওয়া খুব সহজ হয়ে যায়; যার বদৌলতে ক্রেতারা ভারতে গিয়ে ঈদ শপিং করছেন।
রাজধানীর অভিজাত মার্কেটগুলোতে ঘুরে দেখা যায় ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়।

বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ দল বেঁধে মার্কেটে আসছেন কেনাকাটা করতে। যদিও বিক্রেতাদের দাবি, বেচাকেনা সন্তোষজনক নয়। তাদের অভিযোগ, বড় ক্রেতারা এখন আর দেশের মার্কেটে আসছে না। যোগাযোগ ও ভিসাপদ্ধতি সহজ হওয়ায় অনেক মধ্যবিত্ত ক্রেতাও ঈদের কেনাকাটা করতে ছুটছেন কলকাতায়।

Advertisements