আন্তর্জাতিক

এফবিআইকে একহাত নিলেন বারাক ওবামা

1aবর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এফবিআই পরিচালক জেমস কোমির সুরক্ষা নিশ্চিতের চেষ্টা করলেও এবার ওই কেন্দ্রীয় মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাকে একহাত নিয়েছেন।

নির্বাচনের মাত্র কয়েকদিন আগে হিলারির ইমেইল পুনঃতদন্তে নেওয়া এফবিআই-এর সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেছেন তিনি। বুধবার অনলাইন সংবাদমাধ্যম ‘নাও দিজ নিউজ’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা জানান ওবামা। এর দুইদিন আগে ওই একই সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এফবিআই-এর বিতর্কিত পরিচালক জেমস কোমির পক্ষে পরোক্ষ অবস্থান নিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। মুখপাত্রের মাধ্যমে জানিয়েছিলেন, তিনি মনে করেন না যে নির্বাচন প্রভাবিত করতে এফবিআই এমনটা করেছেন।

তবে বুধবার ওবামা বলেছেন, অসম্পূর্ণ তথ্যের ভিত্তিতে এফবিআই প্রধান বিষয়টি নিয়ে নতুন করে তদন্তের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তা প্রচলিত নিয়মের লঙ্ঘন। অবশ্য সোমবারের সাক্ষাৎকারেও ওবামা বলেছিলেন, কেন এফবিআই হিলারির ইমেইল পুনঃতদন্তের সিদ্ধান্ত নিলো, তার জবাব তীব্র সমালোচনার মুখে পড়া এফবিআই পরিচালক জেমস কোমিকেই দিতে হবে।

বুধবারের সাক্ষাৎকারে ওবামা বলেন, এফবিআই-এর এই তদন্তে তিনি কোনোভাবে নাক গলাতে চান না। নাক গলাচ্ছেন এমন কোনও ইঙ্গিতও দিতে চান না। তবে এই তদন্ত নতুন করে শুরু হওয়ায় তিনি সন্তুষ্ট নন। কারণ, এ বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে তদন্ত করা হয়েছে। ওই তদন্তের ভিত্তিতে এফবিআই ও বিচার বিভাগ একটি সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছিল। আর সেটা হচ্ছে, হিলারি ব্যক্তিগত সার্ভার ব্যবহার করে ভুল করেছেন। কিন্তু এর মাধ্যমে তিনি কোনও অপরাধমূলক কাজ তিনি করেননি। কংগ্রেসও এ বিষয়ে তদন্ত করে একই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছিল। এফবিআই-এর অতীত অবস্থানের সঙ্গে সুর মিলিয়ে ব্যক্তিগত সার্ভারে অফিসিয়াল ই-মেইল ব্যবহারকে হিলারির ‘অনিচ্ছাকৃত ভুল’ বলেও মন্তব্য করেন ওবামা। তিনি বলেন, ‘এখন এটা নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। তবে হিলারির ওপর আমার নিরঙ্কুশ আস্থা রয়েছে।’

তবে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজের ফক্স ফ্রাইডে অনুষ্ঠানে এফবিআই পরিচালক জেমস কোমি জানিয়েছিলেন, ‘তদন্তকারীরা হিলারির মেইলগুলোতে কোনও বিশেষ তথ্য আছে বা কোনও বিশেষ বার্তা বহন করে কিনা, তারা তা খতিয়ে দেখছেন। এফবিআই ইতোমধ্যে ডেমোক্রাট প্রার্থীর ব্যক্তিগত ইমেইল সার্ভারে বেশ কিছু স্পর্শকাতর তথ্য পেয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, হিলারির ঘনিষ্ট ‘হুমা আবেদিন ও ওয়েনারের কাছ থেকে এফবিআই একটি ডিভাইস আটক করেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে ওয়েনার নর্থ ক্যারোলিনার এক ১৫ বছর বয়সী কিশোরীর কাছে যৌন হয়রানিমূলক বার্তা পাঠিয়েছেন।’ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে ফাঁস হওয়া খবর থেকে জানা গেছে, মার্কিন কংগ্রেসের নেতাদের কাছে লেখা চিঠিতে কোমি জানিয়েছেন, সম্পূর্ণ ভিন্ন একটি তদন্তকাজ পরিচালনার সময় তারা এমন তথ্যের সন্ধান পেয়েছেন, যা হিলারি ক্লিনটনের ই-মেইল তদন্তের সঙ্গে সম্পর্কিত হতে পারে। সে কারণে এই তদন্ত নতুন করে শুরু করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।  গোয়েন্দা সূত্রে সম্প্রতি কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংসবাদমাধ্যম জানায়, ইমেইলের বিষয়ে আদালতের আদেশ আসার পরও প্রায় ৩০ হাজার ইমেইল মুছে ফেলা হয়েছিল হিলারির ইমেইল সার্ভার থেকে, যা প্রমাণ লোপাটের অভিযোগকে প্রশ্নাতীত করে।

এদিকে মার্কিন নির্বাচনের মাত্র ১১ দিন আগে হিলারি ক্লিনটনের ব্যক্তিগত ই-মেইল ব্যবহারের বিষয়ে নতুন করে তদন্ত শুরুর এ সিদ্ধান্ত নির্বাচনে নতুন মোড় তৈরি করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এরইমধ্যে গত মঙ্গলবার এবিসি টেলিভিশন এবং ওয়াশিংটন পোস্ট পরিচালিত এক জনমত জরিপে এর প্রতিফলন দেখা গেছে। এতে দেখা যায়, জনপ্রিয়তায় হিলারিকে টপকে গেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। জরিপে ৪৬ শতাংশ ভোটার বলেছেন, তারা নির্বাচনে ট্রাম্পকে সমর্থন দেবেন। অন্যদিকে, ৪৫ শতাংশ ভোটার বলছেন, তারা হিলারি ক্লিনটনকে সমর্থন দেবেন।

ভিডিওঃ তুজে বুলাইন ইয়া মেরি – হিন্দি পুরন দিনের হট রোমান্টিক গান (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment