অন্যরকম খবর চট্টগ্রাম জাতীয় বিভাগীয় সংবাদ

এক এনগেজমেন্টে সাবেক রাষ্ট্রপতি-মন্ত্রীসহ ১৬’শ অতিথি, তাও আবার বাংলাদেশে

চট্টগ্রামের একটি এনগেজমেন্টের অনুষ্ঠান আলোচনায় এসেছে। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি প্রায় ১৬’শ। এই তালিকায় আছেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানসহ কমপক্ষে ১৫/২০ জন মন্ত্রী ও এমপি।

বর মাহমুদুল আলম আকিব দেশের অন্যতম শিল্পগ্রুপ এস আলমের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম মাসুদের বড় ভাই মোরশেদুল আলমের ছেলে। আর কনে ইশফাক আরা জাহান রাফিকা চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের মেয়ে।

সোমবার সন্ধ্যায় পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লু’র মেজবান হলে এই এনগেজমেন্ট অনুষ্ঠান। এর আগে সোমবার দুপুরে চট্টগ্রামের বায়তুশ শরফ মসজিদে এই বিয়ের আকদ সম্পন্ন হয়েছে।

এস আলম গ্রুপের হেড অব করপোরেট হুমায়ুন কবির পরিবর্তন ডটকমকে জানিয়েছেন, এস আলম গ্রুপের ব্যবসায়িক, সামাজিক ও পারিবারিক পরিমণ্ডলের ব্যক্তিদের এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

তিনি জানান, আমন্ত্রিত অতিথিদের তালিকায় এরশাদ, সালমান এফ রহমান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ছাড়াও আছেন অনেক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ও ব্যবসায়ী।
এদিকে, কনের বাবা দিদারুল আলম এমপি পরিবর্তন ডটকমকে জানান, এনগেজমেন্ট অনুষ্ঠানে আপাতত: সীমিত পরিসরে দুই পক্ষের নিকটজনরা উপস্থিত থাকবেন। পরবর্তীতে আরও বড় আকারে বিয়ের মূল অনুষ্ঠান করা হবে।
এস আলম গ্রুপ এই মুহূর্তে দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প পরিবার। দেশের সবচেয়ে বড় ব্যাংক ইসলামী ব্যাংকসহ পাঁচটি ব্যাংকের মালিকানা আছে এই প্রতিষ্ঠানটির হাতে।
চীনা বিনিয়োগে দেশের সবচেয়ে বড় বেসরকারি বিদ্যুতকেন্দ্র নির্মাণ করছে এস আলম গ্রুপ।
দেশের প্রথম বেসরকারি টেলিভিশন একুশে টিভির মালিকানাও এই শিল্প পরিবারের হাতে।
এসবের পাশাপাশি পরিবহন, ভোজ্যতেল, চিনি, সিমেন্ট, স্টিলসহ আরও অনেকগুলো শিল্প কারখানা আছে প্রতিষ্ঠানটির।
অন্যদিকে, কনের বাবা দিদারুল আলম এমপি চট্টগ্রামের আরেক শীর্ষস্থানীয় শিল্প পরিবার মোস্তফা–হাকিম গ্রুপের পরিচালক। সিমেন্ট, স্টিলসহ নির্মাণ সামগ্রী উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত এই গ্রুপ।
রেডিসন ব্লু বে-ভিউ হোটেল সূত্রে জানা গেছে, এই এনগেজমেন্ট অনুষ্ঠানে অতিথির সংখ্যা ১৬শ’, যার মধ্যে বেশ কয়েকজন ভিআইপি আছেন।
অতিথিদের জন্য কাচ্চি বিরিয়ানী, গরুর মেজবানি মাংস, চিংড়ি, চিকেনসহ মোট ১০ পদের খাবারের আয়োজন থাকছে।

চট্টগ্রামের ঐতিহ্য এবং ইসলামী রীতি অনুযায়ী এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।