বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

এই বাইকটি মাত্র ১ লিটার জ্বালানিতে ১৪৮ কিলোমিটার চলবে

ক্রমশ দূষণের কালো ধোঁয়া গ্রাস করছে গোটা বিশ্বকে। যানবাহন থেকে বের হওয়া কালো ধোঁয়া দূষণের মাত্রাকে আরও বাড়িয়ে তুলছে গোটা বিশ্বে।

সেখানে দাঁড়িয়ে পেট্রোলে নয়, হাইড্রোজেনে চলবে এমন বাইক (bike) বানিয়ে ফেলল ভারতের চার পড়ুয়া।

তাঁদের দাবি, হাইড্রোজেনে চলার ফলে একদিকে যেমন দূষণের পরিমাণ কমবে, তেমনই এক লিটার জ্বালানিতে বাইকটি চলবে ১৪৮ কিলোমিটার।

জ্বালানি বাঁচাতে, একই সঙ্গে দূষণের মাত্রা কমাতে হাইড্রোজেন চালিত গাড়ি বানাতে মরিয়া বিশ্বের বড়বড় গাড়ি নির্মাতা সংস্থাগুলি।

এমনকি নেদারল্যান্ডসে তো ২০২০ সালের পর হাইড্রোজেন ছাড়া অন্য সমস্ত জ্বালানিচালিত গাড়ি নিষিদ্ধ করার ভাবনা চলছে।

এই পরিস্থিতিতে হাইড্রোজেন চালিত বাইক বানিয়ে কার্যত বিশ্বের তাবড় তাবড় গাড়ি নির্মাতাদের নজরে দক্ষিণের এক কলেজের এই চার পড়ুয়া।

আর বালাজি, গৌতম রাজ, জেরি জর্জ, খালিদ ইব্রাহিম নামে এই চার পড়ুয়ার দাবি, তারা যে বাইক বানিয়েছে তা চলবে হাইড্রোজেনে। ফলে হবে না কোনও দূষণ। আর এক লিটার হাইড্রোজেনে বাইক ছুটবে ১৪৮ কিলোমিটার।

শুধু তারাই নন, এই বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা চালিয়ে যাওয়া তাঁদেরই শিক্ষকের দাবি, এই দেশে, যেখানে পেট্রোলের মতো জ্বালানি অনেক কম, সেখানে অবশ্যই হাইড্রোজেনকে বিকল্প জ্বালানি হিসাবে ভাবা উচিত। কারণ দেশে হাইড্রোজেন খুব সস্তা। মাত্র ৩০ টাকায় মিলতে পারে এক লিটার হাইড্রোজেন।

আর হাইড্রোজেন জ্বলে তৈরি হয় জলীয় বাষ্প। ফলে পরিবেশ দূষণের কোনও সম্ভাবনাই থাকে না। শুধু তাই নয়, অন্যদিকে পড়ুয়াদের আরও দাবি, যে কোনও ইঞ্জিনকে চালানো যেতে পারে হাইড্রোজেনে।

আর তাতে ইঞ্জিনের আয়ু কমার বদলে বরং বাড়ে। আর একটা বাইকে হাইড্রোজেন কিট বসাতে দরকার মাত্র ৭ হাজার টাকা।