মতামত/বিশেষ লেখা/সাক্ষাৎকার

ইসলামের দৃষ্টিতে ব্যবসা-বাণিজ্য-মুফতি মুহাম্মদ আল আমিন

%e0%a6%ae%e0%a7%81%e0%a6%ab%e0%a6%a4%e0%a6%bf-%e0%a6%ae%e0%a7%81%e0%a6%b9%e0%a6%be%e0%a6%ae%e0%a7%8d%e0%a6%ae%e0%a6%a6-%e0%a6%86%e0%a6%b2-%e0%a6%86%e0%a6%ae%e0%a6%bf%e0%a6%a8কর্মজীবনে আমরা কেউ চাকরি করি আবার কেউ ব্যবসা করি। কেউ শ্রমিক আবার কেউ মালিক। সবাই নিজ নিজ কাজ যেন সততার সঙ্গে ও যথাযথভাবে আদায় করি ইসলাম সেদিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েছে। সততার সঙ্গে যারা ব্যবসা-বাণিজ্য করবে তাদের সম্পর্কে হাদিসে এসেছে, নবী করিম (সা.) বলেছেন, নীতিবান ও সৎ ব্যবসায়ীরা কেয়ামতের দিন নবী, সিদ্দিক ও শহীদদের সঙ্গে থাকবে। আবার যারা ব্যবসা-বাণিজ্যে ধোঁকাবাজি ও প্রতারণা করবে তাদের সম্পর্কে কঠোর শাস্তির হুঁশিয়ারি এসেছে। রসুল (সা.) বলেছেন, যে ধোঁকা দেবে সে আমাদের দলভুক্ত নয়। এ বিষয়ে আরও এসেছে, হজরত হোরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত, একবার রসুল (সা.) একটি খাদ্য ভাণ্ডারের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন। নবী (সা.) খাদ্যের স্তূপের ভিতর তাঁর হাত ঢুকিয়ে দিলেন। তখন তাঁর আঙ্গুলে আদ্রতা অনুভব করলেন। রসুল (সা.) বললেন, হে খাদ্যের মালিক, এ আবার কী? ভিতরে ভেজা কেন? সে বলল, হে আল্লাহর রসুল, এতে বৃষ্টি বর্ষিত হয়েছে। রসুল (সা.) বললেন, ভেজা অংশ খাদ্যের উপরে রাখনি কেন যে ক্রেতা তা দেখে নেবে। এরপর তিনি বললেন, যে ব্যক্তি ধোঁকা দেয় সে আমার দলভুক্ত নয়। —মুসলিম শরিফ। প্রিয় পাঠক! প্রিয় নবীর এই হাদিসটির প্রতি লক্ষ্য করলে আমরা দেখতে পাব, আমাদের জীবন পরিবর্তনের অনেক উপাদান ও উপদেশ এখানে নিহিত আছে। মানুষের সঙ্গে সব সময় সততা ও ন্যায়নিষ্ঠাপূর্ণ লেনদেনের যে শিক্ষা নবী করীম (সা.) দিয়েছেন তা বর্তমান দুনিয়ার ভেজালে ভরপুর ব্যবসা-বাণিজ্যে ও আজকের ধোঁকাবাজিপ্রবণ মানব সমাজের জন্য আলোর মশাল হয়ে থাকবে। রসুল (সা.) ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ক্রেতা-বিক্রেতা একে অপরের সঙ্গে ভালো ও কোমল আচরণের প্রতি উৎসাহ প্রদান করেছেন। হাদিস শরিফে এসেছে, নবী করীম (সা.) ইরশাদ করেছেন, আল্লাহতায়ালা ওই ব্যক্তির ওপর রহম করেন যে ক্রয়-বিক্রয়ের সময় এবং নিজের হক আদায়ের সময় কোমল আচরণ করে। —বোখারি। তাছাড়া কোনো অভাবগ্রস্ত ও ঋণগ্রস্তকে কেউ যদি সময় এবং সুযোগ দেয় তাহলে তার রয়েছে অনেক সওয়াব।

হজরত ইমরান বিন হোসাইন (রা.) বলেন, রসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তির কারও ওপর কোনো হক (করজ ইত্যাদি) আছে সে যদি ঋণগ্রস্তকে সময় দেয় তাহলে প্রতিদিনের পরিবর্তে সদকা করার সওয়াব পাবে। —মুসনাদে আহমদ। যদি সমাজের সবাই একে অপরের প্রতি বিশ্বস্ততার সঙ্গে লেনদেন করে ও কারও ক্ষতি কেউ না করে এবং কেউ কাউকে ঠকানোর চিন্তা না করে তাহলে আজকের সমাজও হতে পারে নবী (সা.) ও সাহাবিদের সোনালি যুগের মতো শান্তিময় ও নিরাপদ। সেই সোনালি যুগ ফিরিয়ে আনতে হলে সবার প্রথম যে কাজটি করতে হবে তা হলো, নবী (সা.)-এর সম্পূর্ণ জীবন অনুসরণ করতে হবে এবং তার পবিত্র মুখ নিঃসৃত প্রতিটি হাদিসের ওপর আলোচনা ও আমল করতে হবে। মহান পরওয়ারদেগার যেন আমাদের সেই তৌফিক দান করেন। আমিন।

লেখক : খতিব, সমিতি বাজার মসজিদ, নাখালপাড়া, ঢাকা



আজকের জনপ্রিয় খবরঃ

গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ:

  1. বুখারী শরীফ Android App: Download করে প্রতিদিন ২টি হাদিস পড়ুন।
  2. পুলিশ ও RAB এর ফোন নম্বর অ্যাপটি ডাউনলোড করে আপনার ফোনে সংগ্রহ করে রাখুন।
  3. প্রতিদিন আজকের দিনের ইতিহাস পড়ুন Android App থেকে। Download করুন

Add Comment

Click here to post a comment