খেলা-ধুলা

ইতিহাস গড়েও মিতালিদের ম্যাচ জেতা হলো না

সেঞ্চুরি হাঁকালেন পুনম রাউত। ইতিহাস গড়লেন মিতালি রাজ। তা সত্ত্বেও ম্যাচ জেতা হলো না। দক্ষিণ আফ্রিকার পর অস্ট্রেলিয়ার কাছেও মুখ থুবড়ে পড়ল ভারতীয় মহিলা ব্রিগেড। আর তাতেই মহিলা বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছনো কার্যত অসম্ভব হয়ে পড়ল মিতালিদের জন্য।

দু’বারের চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দল যে বেশ চাপে ছিল, তা মিতালি রাজের একটি টুইটেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। তিনি লিখেছিলেন, “অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে নিজেদের সেরাটা দেয়ার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ব।” কিন্তু বুধবার নিজেদের সেরাটা উজার করে দিয়েও শেষরক্ষা হল না। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের সৌজন্যে সহজেই ম্যাচ জিতে নিল অস্ট্রেলিয়া। ৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট ঝুলিতে ভরে গ্রুপ শীর্ষে অজিবাহিনী।


অজি ব্যাটসম্যানদের ত্রাস ভারতীয় স্পিন। আর সেই স্পিনকেই কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন মিতালি। কিন্তু মেগ ল্যানিং, পেরিরা ব্যাট হাতে যে দাপট দেখালেন তাতে একতা বিস্ত, হরমনপ্রীত কৌরদের রাতের ঘুম উড়ে গেল। নিকোল বল্টনের উইকেট নিয়ে শুরুতে অজিবাহিনীকে সামান্য ধাক্কা দিতে সফল হয়েছিলেন পুনম যাদব। কিন্তু তাতে বিশেষ লাভ হয়নি। পেরিকে সঙ্গে নিয়ে অধিনায়ক ল্যানিং দুর্দান্ত পার্টনারশিপ গড়ে দলকে জিতিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরলেন।

এদিন টস জিতে মিতালিদের ব্যাট করতে পাঠিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। শুরুটাও দারুণভাবেই করেছিলেন পুনম। স্মৃতি মন্দনা তিন রানে আউট হওয়ার পর ক্রিজে জাঁকিয়ে বসেন মিতালি ও পুনম। ১১ টি চার হাঁকিয়ে ১০৬ রানে চোখ ধাঁধানো ইনিংস খেলেন পুনম। এদিকে, এডওয়ার্ডকে পিছনে ফেলে এদিনই বিশ্বের সর্বোচ্চ রানের মালিক হয়ে গেলেন ভারত অধিনায়ক মিতালি রাজ। ১৮১ ম্যাচে ৫৯৯২ রান ছিল তাঁর। এবার তাঁকে টপকে গেলেন ভারত অধিনায়ক। একমাত্র মহিলা ব্যাটসম্যান হিসেবে ছ’হাজারের (৬০২৮) বেশি রান এখন তাঁর ঝুলিতে। তবে টপ-অর্ডার ভাল খেললেও ক্রিজে টিকতে পারলেন টেল এন্ডাররা। আর সেই কারণেই বড় রানের ইনিংস তৈরি হল না ভারতের। ব্যাটিং সহায়ক পিচে সেই সুযোগকেই কাজে লাগালেন অজি ব্যাটসম্যানরা। ২৯ বল বাকি থাকতে মাত্র দুউইকেট খুইয়েই জয় হাসিল করলেন তাঁরা। এই হারের ফলে শেষ চারে যাওয়া কঠিন হয়ে গেল ভারতের। সেমিফাইনালে যেতে শনিবার ১৫ জুলাই নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে জিততে তো হবেই, সেই সঙ্গে অন্য দলগুলির দিকেও তাকিয়ে থাকতে হবে মিতালিদের।